ঢাকা, শুক্রবার ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন
টেনিস তারকা পেং শুয়াই কোথায়? চিনের কাছে জানতে চাইল আমেরিকা, নিরপেক্ষ তদন্ত চায় রাষ্ট্রপুঞ্জ
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

টেনিস তারকা পেং শুয়াই কোথায়? চিনের কাছে জানতে চাইল আমেরিকা, নিরপেক্ষ তদন্ত চায় রাষ্ট্রপুঞ্জ

 চিনের কমিউনিস্ট পার্টির (Communist Party) উঁচুতলার এক নেতার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলেছিলেন টেনিস তারকা পেং শুয়াই। এরপরে পেং নিখোঁজ হয়ে যান। তাঁকে নিয়ে হইচই শুরু হয়েছে বিশ্ব জুড়ে। শুক্রবার হোয়াইট হাউসের প্রেস সচিব জেন সাকি বলেন, বাইডেন প্রশাসন চায়, পেং কোথায় আছেন চিন জানাক। বিশ্বের প্রথম সারির টেনিস তারকা পেং নিখোঁজ হয়ে যাওয়ায় ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছে আমেরিকা।


রাষ্ট্রপুঞ্জ বলেছে, চিনের কমিউনিস্ট পার্টির নেতা ঝাং গাওলির বিরুদ্ধে পেং যে অভিযোগ তুলেছিলেন, তার তদন্ত হওয়া উচিত। ওয়ার্ল্ড টেনিস অ্যাসোসিয়েশন বলেছে, পেং-এর খোঁজ না পাওয়া গেলে আগামী দিনে চিনে কোনও টুর্নামেন্ট করা হবে না।

চিন থেকে বলা হয়েছে, সরকার এই বিতর্ক সম্পর্কে কিছুই জানে না। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান বলেন, এটা কূটনৈতিক বিষয় নয়। আমি এসম্পর্কে কোনও প্রশ্নের জবাব দিতে পারব না।


চিনের সরকারি সংবাদ মাধ্যমের এক সাংবাদিক অবশ্য বলেছেন, নিজের বাড়িতেই আছেন পেং। তিনি মুক্তই আছেন। শীঘ্রই তাঁকে প্রকাশ্যে দেখা যাবে। তিনি নানা সামাজিক কাজকর্মেও অংশ নেবেন।

নভেম্বরের শুরুতে পেং অভিযোগ করেন, চিনের প্রাক্তন উপ প্রধানমন্ত্রী ঝাং গাওলি তাঁকে যৌন হেনস্থা করেছেন। চিনের জাতীয় টেনিস অ্যাসোসিয়েশন এসম্পর্কে কোনও মন্তব্য করেনি। ডব্লুটিএ-র চেয়ারম্যান স্টিভ সাইমন বলেন, পেং যেভাবে নিখোঁজ হয়েছেন, তা গভীর উদ্বেগের বিষয়। তিনি অত্যন্ত গুরুতর অভিযোগ করেছিলেন। তা নিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত। এক বিবৃতিতে সাইমন বলেন, “আমরা প্রত্যেক খেলোয়াড়ের নিরাপত্তার দিকে নজর রাখি। পেং যাতে ন্যায়বিচার পান, সেজন্যই আমরা মুখ খুলেছি।”

১৮ টি গ্র্যান্ড স্লাম বিজয়ী ক্রিস এভার্টও পেং-এর সমর্থনে সরব হয়েছেন। তাঁর টুইটার হ্যাশট্যাগে লেখা হয়েছে, ‘হোয়ার ইজ পেং শুয়াই’। ক্রিস বলেন, পেং-এর বয়স যখন ১৪, তখন থেকেই আমি তাঁকে চিনি। তার সমর্থনে আমাদের সকলেরই মুখ খোলা উচিত। আমি জানতে চাই, সে কোথায়? সে কি নিরাপদে আছে? তার সম্পর্কে কি কারও কিছু জানা আছে?

নভেম্বরের শুরুতে ৩৫ বছর বয়সী পেং চিনের নিজস্ব সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েইবো-তে লেখেন, ঝাং তাঁকে যৌন হেনস্থা করেছিলেন। দ্রুত তাঁর বক্তব্য ওয়েইবো থেকে মুছে দেওয়া হয়। তারপর থেকেই পেং-এরও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। খবর দ্য ওয়ালের /২০২১/এনবিএস/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: