ঢাকা, বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:১১ অপরাহ্ন
ত্রিপুরায় যুব তৃণমূলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষ গ্রেফতার, রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

ত্রিপুরায় যুব তৃণমূলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষ গ্রেফতার, রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত


ভারতের বিজেপিশাসিত ত্রিপুরায় পশ্চিমবঙ্গের যুব তৃণমূলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তিনি আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় প্রচারের জন্য ত্রিপুরায় গেছেন। আজ (রোববার) ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজ্যের রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

সায়নী ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ,  তিনি গাড়ি চাপা দিয়ে একজনকে খুনের চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু ওই অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে জানিয়েছেন তৃণমূল নেতারা। গণমাধ্যমে প্রকাশ, তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৭, ১০২ বি, ১৫৩, ১৫৩-এ ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। 

পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘আগামীকাল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা্‌,  সেটা বানচাল করার জন্য এসব করা হচ্ছে। ত্রিপুরার মানুষ তৃণমূলকে ভোট দেবেন। বিজেপি হারার জায়গায় আছে। সেজন্য সর্বশক্তি প্রয়োগ করে, দানবিক শক্তি প্রয়োগ করে এভাবে আজকে যারা থানায় সারাদিন তাণ্ডব করল, তাদের একটা লোককেও গ্রেফতার করা হয়নি। কিন্তু সায়নী ঘোষকে তুলে এনে এখানে গ্রেফতার করা হল!’ তৃণমূল নেত্রী সুস্মিতা দেব এমপি বলেছেন, মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে সায়নীকে।

আগামী ২৫ নভেম্বর ত্রিপুরায় পৌর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তার ঠিক আগে রাজ্য যুব তৃণমূলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষের গ্রেপ্তারি যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল। অন্যদিকে, বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি সুকান্ত মজুমদার আজ এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘ত্রিপুরায় প্রার্থী দিতে পারছে না তৃণমূল। সেজন্য বাইরে থেকে লোক এনে সভা করতে হচ্ছে।’ তিনি বলেন,  তৃণমূলের বড় নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় ৫০০ লোক জমায়েত  করতে পশ্চিমবঙ্গ থেকে লোক নিয়ে যেতে হচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই ত্রিপুরায় অভিষেক যাচ্ছেন, না কী মমতা  বন্দ্যোপাধ্যায় যাচ্ছেন তার কোনও প্রভাব নেই।’

ত্রিপুরায় বিজেপির কেউ বিরোধী থাকলে তা হল সিপিএম। তৃণমূল কংগ্রেস নয় বলেও মন্তব্য করেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।খবর পার্সটুডে/২০২১/এনবিস/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: