ঢাকা, বুধবার ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন
মুখ্যমন্ত্রী ভিক্ষা চাইতে দিল্লি গেছেন’- মন্তব্য দিলীপের, পাল্টা কটাক্ষ ফিরহাদের
এনবিএস ওয়েবডেস্ক :

মুখ্যমন্ত্রী ভিক্ষা চাইতে দিল্লি গেছেন’- মন্তব্য দিলীপের, পাল্টা কটাক্ষ ফিরহাদের


ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সাবেক বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এমপি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর দিল্লি সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত প্রসঙ্গে বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রী ভিক্ষা চাইতে দিল্লি গেছেন।

তার এ ধরণের মন্তব্যের পাল্টা সমালোচনা করেছেন রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী ও তৃণমূলের সিনিয়র নেতা ফিরহাদ হাকিম।

বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ  আজ (বুধবার) বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী ভিক্ষা চাইতে দিল্লি  গেছেন। কেউ গেছেন ত্রিপুরাতে, কেউ গোয়াতে। পশ্চিমবঙ্গের মানুষের কী হবে? যারা এটাকে গোয়া বানাতে চাচ্ছেন, গোয়াকে বাংলা বানাতে চাচ্ছেন। এই যে দুরবস্থা মহিলাদের উপরে রোজ খুন, সহিংসতা, অত্যাচার বেড়ে চলেছে এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক! আমার মনে হয় ধীরে ধীরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে।’ 

বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষের পাল্টা জবাবে রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী ও তৃণমূলের সিনিয়র নেতা ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘একজন বিরোধী নেতা যখন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে আসেন, তখন আমরা এই ‘অসভ্য ভাষা’ বলতে পারি না যে তিনি  এসেছিলেন ভিক্ষা করতে। দিলীপ বাবুও অনেক কাজে আমার কাছেও আসেন।   আপনাদের সামনেই এসেছেন। আমি এরকমভাবে কখনও কাউকে বলতে পারি না। যখন একজন মুখ্যমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে যান তখন তিনি রাজ্যের স্বার্থে যান। ওনার এটা সংস্কৃতির ব্যাপার যে উনি এটাকে ভিক্ষা ভাবেন দাবি ভাবেন, না  বাংলার মানুষের অধিকার ভাবেন সেটা ওনার ব্যাপার। আমি এ ধরণের কালচারে বিশ্বাসী নই।’

গত (সোমবার) ৪ দিনের  দিল্লি  সফরে গেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সফরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও অন্য নেতাদের সঙ্গে বাংলার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ছাড়াও রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলবেন।

দিল্লি যাওযার আগে  তিনি বলেছিলেন, বাংলার উন্নয়নের নানা বিষয় নিয়ে কথা হবে। কিন্তু মূলত আলোচনা হবে বিএসএফ নিয়ে। তিনি বলেন, গায়ের জোরে এলাকা দখল করতে দেবো না।  ‘বিএসএফ আমাদের বন্ধু। কিন্তু গণতান্ত্রিক কাঠামো নষ্ট করে রাজ্যে বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধি মেনে নেওয়া যায় না। বিএসএফ তো 'বিজেপি সেফ' হয়ে যাচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।খবর পার্সটুডে/এনবিএস/২০২১/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: