ঢাকা, শনিবার ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:২৩ পূর্বাহ্ন
পাকিস্তানের জন্যই দূষণ! দাবি উত্তরপ্রদেশের, কী বললেন প্রধান বিচারপতি?
Reporter Name

পাকিস্তানের জন্যই দূষণ! দাবি উত্তরপ্রদেশের, কী বললেন প্রধান বিচারপতি?

 ন্যাশনাল ক্যাপিটাল রিজিয়নে (এনসিআরে) দূষণের (air pollution) জন্য  উত্তরপ্রদেশের  কলকারখানাগুলির কোনও দোষ নেই, পাকিস্তান (pakistan) থেকে আসা দূষিত বাতাসেই(polluted air)  ক্ষতি হচ্ছে রাজধানীর (capital)। সুপ্রিম কোর্টে (supreme court) এমনই সওয়াল করলেন উত্তরপ্রদেশ সরকারের (uttar pradesh) তরফে সিনিয়র কৌঁসুলি রঞ্জিত কুমার, যা শুনে প্রধান বিচারপতি (cji) এন ভি রমনার মন্তব্য, তাহলে আপনারা চান,  পাকিস্তানে কলকারখানা  নিষিদ্ধ হোক!  উল্লেখ্য, দিল্লি ও এনসিআরের বাতাসের গুণমানের দিনদিন অবনতি হচ্ছে দূষণের জেরে।

পাকিস্তান থেকে আসা দূষিত বাতাস দিল্লির বাতাসকে কলুষিত করছে বলে দাবি করে তিনি বলেন,আট ঘন্টার যে ছাড় দেওয়া হয়েছে, তার প্রভাব পড়ছে উত্তরপ্রদেশের দুধ ও আখ শিল্পের ওপর। প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ তাঁদের তেহ কমিশনের দ্বারস্থ হয়ে সমস্যার সমাধান চাইতে বলে।

ক্রমবর্ধমান বায়ু দূষণ মোকাবিলায় কিছু কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে ২৪ ঘন্টার সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ। পরদিনই এনসিআরের দূষণ পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে একটি এনফোর্সমেন্ট টাস্ক ফোর্স গঠন করে এয়ার কোয়ালিটি ম্যানেজমেন্ট কমিশন। গত ২৪ ঘন্টায় কী কী পদক্ষেপ করা হয়েছে, শোনার পর আদালত দিল্লি সরকারকে হাসপাতালের নির্মাণকাজ চালানোর অনুমতি দেয়।

কমিশন সুপ্রিম কোর্টকে জানায়,  দিল্লি ও এনসিআরে বায়ুদূষণ নিয়ন্ত্রণে একটি ৫ সদস্যের এনফোর্সমেন্ট টাস্ক ফোর্স গড়া হয়েছে। এধরনের প্রায় ৪০টি স্কোয়াড ঘুরে ঘুরে দেখবে, তারা দূষণ বন্ধে যেসব পদক্ষেপ সুপারিশ করেছে, সেগুলি যথাযথ কার্যকর হচ্ছে কিনা। এমন ১৭টি ফ্লাইং স্কোয়াড তৈরি হয়ে গিয়েছে, যারা আদালত ও কমিটি অনুমোদিত নানা পদক্ষেপের রূপায়ণ সুনিশ্চিত  করবে।

পরিবেশ রক্ষাকর্মী আদিত্য দুবে ও আইনের ছাত্র অমন বাঙ্কার দায়ের করা পিটিশনের শুনানি চলছিল সুপ্রিম কোর্টে।  দুজনেরই আবেদন, ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষিদের খড়, নষ্ট হওয়া ফসল সরানোর মেশিন বিনামূূল্যে দেওয়ার নির্দেশ  দেওয়া হোক। খরব দ্য ওয়ালের /২০২১/এনবিএস/একে

ইউটিউবে এনবিএস-এর সব খবর দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি: