একুশে পদক পাওয়া বরেণ্য নির্মাতা সৈয়দ সালাহউদ্দিন জাকী মারা গেছেন

চলচ্চিত্র নির্মাতা সৈয়দ সালাহউদ্দিন জাকী ১৮ সেপ্টেম্বর সোমবার রাত ১১টা ৫৩ মিনিটে রাজধানীর  ইউনাইটেড হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। তিনি জন্মগ্রহণ করেন ১৯৪৬ সালের ২৬ আগস্ট। তিনি স্ত্রী শাহানা বেগম, এক ছেলে সৈয়দ শামস আদনান অনন ও  এক মেয়ে সৈয়দ অন্তরা শবনমকে রেখে গেছেন। ছেলেমেয়ে দু’জনেই কানাডা থাকেন। তারা বুধবার ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবেন। তারা এলেই সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকীকে আজিমপুর গোরস্থানে দাফন করা হবে।  

জানা গেছে, সোমবার রাত ১০টার পর হঠাৎ শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে সৈয়দ সালাহউদ্দিন জাকীর। এরপর তাকে দ্রুত রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সৈয়দ সালাহউদ্দিন জাকী পুনা ফিল্ম ইনস্টিটিউট থেকে পরিচালনা বিষয়ে ডিগ্রি নিয়ে এসে নির্মাণ করেন ‘ঘুড্ডি’ নামে একটি চলচ্চিত্র। এই চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ১৯৮০ সালে তিনি পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। এছাড়া তিনি বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নিয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করেছেন। এই প্রামাণ্যচিত্রটি প্রথম প্রদর্শিত হয় একটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে। এছাড়া আর কোনো ছবি পরিচালনা না করলেও ঘুড্ডি ছবির পাশাপাশি আরো প্রযোজনা করেছেন লাল বেনারসি এবং আয়না বিবির পালা। এছাড়া কাহিনী লিখেছেন ঘুড্ডি, আগামী, উত্থান পতন, সে, নদীর নাম মধুমতি, মেঘলা আকাশ এবং লালসালু ছবির। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং একুশে পদক (২০২১) পাওয়া এই নির্মাতা এফডিসির পরিচালক (উৎপাদন) এবং বিটিভির মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। কেরিয়ারের শেষ দিকে তিনি বেসরকারি টিভি চ্যানেল এসএ টিভির নির্বাহী প্রধান ছিলেন। সেখান থেকেই অবসরে চলে যান। 

টেলিভিশন ক্যারিয়ারের পাশাপাশি তিনি ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ‘প্রজাপতি একা’ নামে একটি ছবির কাজ শুরু করেছিলেন। সেটির কাজ অনেক দূর এগিয়ে নিলেও শেষ করে যেতে পারেননি। 
 খ্যাতিমান নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহানের মৃত্যু শোক কাটিয়ে উঠার আগেই বরেণ্য নির্মাতা সালাহউদ্দিন জাকীর মৃত্যুতে মুষড়ে পড়েছে শোবিজ অঙ্গন।সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি

news