গাজায় যুদ্ধবিরতির দাবিতে বিশ্বজুড়ে বিক্ষোভ

গাজায় ইসরায়েলি নির্বিচার হামলার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানিসহ বিশ্বের অনেক দেশের জনগণ যুদ্ধ বিরতির আহ্বান জানিয়ে এবং ইসরায়েলের হামলার নিন্দা জানিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন। শনিবার একযোগে লন্ডন, বার্লিন, প্যারিস, আঙ্কারা, ইস্তাম্বুল এবং ওয়াশিংটনে মিছিল করেছেন বিক্ষোভকারীরা।

‘স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র চাই’, ‘আমরা সবাই ফিলিস্তিনি’, ‘যুদ্ধবিরতি চাই’ এসব বলে স্লোগান দিতে থাকে বিক্ষোভকারীরা। পুলিশ বলছে, এ ঘটনায় জাতিগত বিদ্বেষ উসকে দেওয়ার অপরাধে তারা ২৯ জনকে গ্রেফতার করেছে। শুধু তাই না বিক্ষোভের সময় প্রদর্শিত ব্যানারের শব্দের সাথে আইন লঙ্ঘন করার সন্দেহে দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বিক্ষোভকারীরা লন্ডনের ট্রাফালগার স্কয়ারে মিছিল করার আগে শহরের কেন্দ্রস্থলের কিছু অংশ অবরুদ্ধ করে বিশাল বিক্ষোভ করে। তবে প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক যুদ্ধবিরতির ঘোরতর বিরোধী  এমনকি গাজায় সহযোগিতা পাঠানোর বিপক্ষে কথা বলেছেন তিনি।

 হাজার হাজার বিক্ষোভকারী ফিলিস্তিনি পতাকা উড়িয়ে ওয়াশিংটনের রাস্তায় নেমে মিছিল করেছে, কেউ কেউ হোয়াইট হাউস থেকে দূরে ফ্রিডম প্লাজায় জমায়েত হওয়ার আগে স্লোগান দিতে থাকে বাইডেন আপনি লুকাতে পারবেন না,আপনি গাজার গণহত্যার জন্য সম্মত হয়েছেন।

ফ্রান্সের প্যারিসে,‘সহিংসতা বন্ধ করুন’ এবং ‘কিছু না করা, কিছুই না বলা অবৈধ কাজের সাথে জড়িত হওয়ার সমান’ লেখা প্ল্যাকার্ড নিয়ে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে হাজার হাজার বিক্ষোভকারী মিছিলে নামে। এরই রেশ ধরে ফ্রান্স চলতি মাসের ৯ তারিখ গাজায় একটি আন্তর্জাতিক মানবিক সম্মেলনের আয়োজন করতে যাচ্ছে।

ফিলিস্তিনি ইস্যুতে  আলোচনার জন্য মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের তুরস্ক সফরের একদিন আগে ইস্তাম্বুল ও আঙ্কারায় শত শত বিক্ষোভকারী জড়ো হযয়েছে। বিক্ষোভকারীরা মার্কিন দূতাবাসের কাছে জড়ো হয়ে স্লোগান দিতে থাকে ‘ইসরায়েল হাসপাতালে হামলা চালিয়েছে আর এজন্য বাইডেন অর্থ প্রদান করে।’

 ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে শনিবার হাজার হাজার মানুষ বার্লিনের রাস্তায় নেমে আসে। পুলিশের একজন মুখপাত্র এএফপিকে বলেছেন, ‘আমরা অনুমান করছি প্রায় ৩,৫০০ মানুষ এই বিক্ষোভে অংশ নিয়েছে। তবে আরো লোক বিক্ষোভে যোগ দিচ্ছে।’ সমাবেশের শুরুতে পরিবেশ শান্ত ছিল এবং অনেক বিক্ষোভকারী তাদের পরিবার এবং সন্তানদের সাথে নিয়ে এসেছিলেন।

এএফপি সাংবাদিকরা জানায়, বিক্ষোভকারীরা ‘সেভ গাজা’, ‘স্টপ জেনোসাইড’ এবং ‘যুদ্ধবিরতি’ লেখা প্লাকার্ড নিয়ে মিছিলে অংশ নেয়। অংশগ্রহণকারীদের অনেকেই ফিলিস্তিনিদের আইডেন্টিটি ও প্রতিরোধের প্রতীক স্কার্ফ কেফিয়াহ পরেছে।

বিক্ষোভকারীরা মধ্য বার্লিনের বিখ্যাত আলেকজান্ডারপ্লাটজে জড়ো হয়েছিল, তারা ফিলিস্তিনের পতাকা বহন করছিল এবং ‘ফ্রি প্যালেস্টাইন’ দাবি তুলে শ্লোগান দিচ্ছিলো। ফিলিস্তিনির সমর্থনে বিভিন্ন সংগঠন এই বিক্ষোভের ডাক দেয়।

 আয়োজকরা ধারণা করেছিল ২,০০০ লোক এতে যোগ দেবে, তবে পুলিশের ধারণা অংশগ্রহনকারীদের সংখ্যা ১০ হাজারে দাঁড়াতে পারে। সমাবেশের এলাকায় ১৪০০ পুলিশ কর্মকর্তা মোতায়েন করা হয়।সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি

news