ঢাকা, রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪ | ৬ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

অমৃতপাল সিং ইস্যুতে বিদেশে ভারতের দূতাবাসগুলোয় হামলা


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ২২ মার্চ, ২০২৩, ০৯:০৩ পিএম

অমৃতপাল সিং ইস্যুতে বিদেশে ভারতের দূতাবাসগুলোয় হামলা

 অমৃতপাল সিং ইস্যুতে বিদেশে ভারতের দূতাবাসগুলোয় হামলা

শনিবার বিকেলে পাঞ্জাবের জলন্ধরের কাছে পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার পর বাহাত্তর ঘণ্টারও বেশি কেটে গেলেও পাঞ্জাবের খালিস্তানপন্থী নেতা অমৃতপাল সিং এখনও ফেরার রয়েছেন, পুলিশ তার কোনও সন্ধান পায়নি।

অমৃতপাল সিংয়ের বিরুদ্ধে পাঞ্জাব পুলিশের এই অভিযান নিয়ে ক্ষুব্ধ খালিস্তানপন্থীরা। ভারত ছাড়াও বিদেশের মাটিতেও হইচই ফেলে দিয়েছে খালিস্তানিরা। এই আবহে এবার খালিস্তাপন্থীদের একাধিক টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করেছে ভারত সরকার। এই তালিকায় রয়েছেন, কানাডার নতুন ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেতা জগমিৎ সিং, কানাডার কবি রুপি কউর এবং সমাজকর্মী গুরদীপ সিংহ সাহোতার টুইটার। ‘ইউনাইটেড শিখস’ নামে একটি স্বতন্ত্র সংগঠনের টুইটার অ্যাকাউন্টও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এই নেতাকে আটক করার জন্য পুলিশি অভিযানকে কেন্দ্র করে দেশে দেশে ভারতবিরোধী শ্লোগানসহ রাষ্ট্রদূতরা খালিস্তানপন্থীদের হামলার মুখে পড়েছে। ব্রিটেনের পর যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা বা অস্ট্রেলিয়ার নামও এই তালিকায় যুক্ত হয়েছে। বিশ্বের যেসব দেশে বড়সড় শিখ জনসংখ্যা আছে সেখানেই এই প্রবণতা দেখা যাচ্ছে।

লন্ডনে খালিস্তানিরা ভারতীয় দূতাবাস থেকে জাতীয় পতাকা নামিয়ে দেয়। কিন্তু সান ফ্রান্সিসকোতে বিশাল খালিস্তানপন্থি জনতা ভারতীয় কনসুলেট আক্রমণ করে। কনসুলেটের বাইরের দেওয়ালে রঙ দিয়ে লেখে ‘ফ্রি অমৃতপাল'’ বা অমৃতপালকে মুক্তি দিতে হবে। ভারত ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের কাছে প্রবল প্রতিবাদ জানিয়েছে। এই ধরনের ঘটনা যাতে না হয়, তা বলা হয়েছে। ভারত সরকারের পক্ষ থেকে লিখিত বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, মার্কিন সরকারকে তাদের ন্যূনতম দায়িত্বের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়া হয়েছে। তাদের বলা হয়েছে, তারা যেন উপযুক্ত ব্যবস্থা নেন। এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন আর না হয়। ডয়েচে ভেলে

গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়, আশি হাজার সদস্যের বিশাল বাহিনী নিয়েও পাঞ্জাব পুলিশ কেন এখনও অমৃতপাল সিংকে ধরতে পারছে না, সেই প্রশ্নেও মঙ্গলবার পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট সরকারের কড়া সমালোচনা করেছে। ফলে দেশের ভেতরে যেমন, তেমনি বাইরেও অমৃতপাল সিংকে আটক করার অভিযানের জেরে ভারতকে তীব্র অস্বস্তির মুখে পড়তে হচ্ছে।

আড়াই বছর আগে ভারতে ব্যাপক কৃষক আন্দোলনের সময় যেমন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে শিখ সংগঠনগুলো ভারতের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল এখন আবার যেন অনেকটা সেই দৃশ্যেরই পুনরাবৃত্তি দেখা যাচ্ছে।

এর আগে পুলিশের তরফে আদালতকে জানানো হয় যে গত শনিবার থেকেই অমৃতপাল সিং-কে ধরার জন্য বিশাল সাঁড়াশি অভিযান চালানো হচ্ছে এবং ইতোমধ্যেই ওই নেতার ১২০ জন সঙ্গী ও সমর্থককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এনবিএস/ওডে/সি