ঢাকা, শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০২৪ | ৪ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

৭ বসতি পুনরুদ্ধারের দাবি ইউক্রেনের


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ১৩ জুন, ২০২৩, ০১:০৬ পিএম

৭ বসতি পুনরুদ্ধারের দাবি ইউক্রেনের

 ৭ বসতি পুনরুদ্ধারের দাবি ইউক্রেনের

 রাশিয়ার বাহিনীর বিরুদ্ধে এক সপ্তাহের পাল্টা আক্রমণে ৭টি বসতি পুনরুদ্ধার করেছে ইউক্রেনের সেনারা। দনেতস্কের পূর্বাঞ্চাল ও তাভরিলা অঞ্চলে এসব বসতি বা গ্রাম অবস্থিত। উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী হান্না মালিয়ারের বরাত দিয়ে রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইক্রিনফর্ম একথা জানায়।

দখল করা গ্রামগুলো হল, লোবকোভ, লেভাদনে, নভোদারিভকা, নেস্কুয়াচনে, স্টোরোঝেভ, মারারিভকা ও ব্লাগোদাতনে। উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, পূর্বাঞ্চলের দনেতস্ক ও দক্ষিণের তাভরিইয়াস্কে তাদের সেনারা সাড়ে ৬ কিলোমিটার অগ্রসর হয়ে প্রায় ৯০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা দখল পুণর্দখল করেছে।

ওয়াশিংটন ভিত্তিক থিংক ট্যাংক ইনস্টিটিউট অব স্ট্যাডি অব ওয়ার (আইএসডব্লিুউ) জানায়, ইউক্রেনের বাহিনী দনেতস্কের পশ্চিমে এবং জাপোরঝিয়ার পশ্চিমে দর্শনীয় অগ্রগতি ও সাফল্য অর্জন করেছে। রুশ সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করলেও তারা একে খাটো করে দেখাচ্ছে।

অনলাইনে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, স্তোরোঝেভ গ্রামে ইউক্রেনের পতাকা ওড়াচ্ছেন সেনারা। পুনরায় গ্রামটির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ায় ৩৫তম ‘সেপারেট ব্রিগেড অব মেরিনস’-এর সেনাদের অভিনন্দন জানায় প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করা যায়নি।

বাখমুত শহরের দিকে অগ্রসর হওয়ারও দাবি করেছে ইউক্রেনের বাহিনী। ১০ ধরে প্রচন্ড লড়াই চলার পর রাশিয়ার বাহিনী সম্প্রতি বাখমুত শহরটি দখল করার দাবি করে।

এর আগে বিবিসির খবরে বলা হয়, দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের তিনটি গ্রামের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার দাবি করেছিল ইউক্রেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, ইউক্রেনের দোনেৎস্ক অঞ্চলের ব্লাহোদান্তে ও নেস্কুচনে এলাকায় ইউক্রেনীয় বাহিনী বিজয় উদ্যাপন করছে।

গত শনিবার প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে পাল্টা হামলা শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। গত কয়েক দিন পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে অগ্রসর হচ্ছিল ইউক্রেনীয় বাহিনী। তবে পরিকল্পিত এ পাল্টা হামলা শুরুর বিষয়ে এত দিন মুখ খুলছিল না ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ।

এদিকে রাশিয়া বলেছে, ইউক্রেনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি গ্রামে ইউক্রেনীয় বাহিনীর হামলা প্রতিহত করেছে রুশ বাহিনী। সোমবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ভেলিকা নোভোসিলকার কাছে ইউক্রেনীয় বাহিনীর তিনটি হামলা ঠেকিয়ে দিয়েছে রুশ বাহিনী। পূর্বাঞ্চলীয় দোনেৎস্কের এই শহরে অগ্রসর হওয়ার দাবি করেছিল ইউক্রেনের সেনাবাহিনী। এ ছাড়া ভেলিকা নোভোসিলকার ঠিক পশ্চিমে দক্ষিণাঞ্চলীয় জাপোরিঝঝিয়ার লেভান্দে গ্রামের কাছেও ইউক্রেনীয় বাহিনীর হামলা ঠেকিয়ে দেওয়ার দাবি করেছে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

অন্য এক খবরে বলা হয়, গত কয়েক দিনের লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া ১৬টি ব্র্যাডলি যুদ্ধযান হারিয়েছে ইউক্রেন। ডাচ ওপেন সোর্স ইন্টেলিজেন্স ওয়েবসাইট ওরিক্সের জাকুব জানোভস্কি র রিপোর্টে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া ১৬টি ব্র্যাডলি পদাতিক যুদ্ধযান ধ্বংস বা ক্ষতিগ্রস্ত কিংবা পরিত্যক্ত হয়েছে। এটি ইউক্রেনকে দেওয়া ১০৯টি ব্র্যাডলি যুদ্ধযানের প্রায় ১৫ শতাংশ। গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রাশিয়া। এর পর থেকে ছবি ও ভিডিওর মাধ্যমে যুদ্ধক্ষেত্রে সামরিক সরঞ্জাম ক্ষয়ক্ষতির তথ্য সংগ্রহ করে আসছে ওরিক্স। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

 এনবিএস/ওডে/সি