ঢাকা, বুধবার, জুলাই ২৪, ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

সরকারের কাছে চার কোটি টাকার সাহায্য চায় ফুটবল ফেডারেশন


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ১৮ জুন, ২০২৩, ০৩:০৬ পিএম

সরকারের কাছে চার কোটি টাকার সাহায্য চায় ফুটবল ফেডারেশন

 সরকারের কাছে চার কোটি টাকার সাহায্য চায় ফুটবল ফেডারেশন

বাংলাদেশে ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে ফিফা থেকে দুই বছরের নিষেদ্ধাজ্ঞা পেয়েছেন সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ। এছাড়াও বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনসহ কর্মকর্তাদের দুর্নীতির তদন্ত এখনো চলমান। অন্যদিকে সাফ জয়ী মেয়েদের জন্য এখনো কোনো ম্যাচের আয়োজন করতে পারেনি বাফুফে। ফলে হতাশায় ফুটবলকে বিদায় বলেছে বেশ কয়েকজন ফুটবলার। চলতি মাসে মেয়েদের ফ্রাঞ্চাইজি ভিত্তিক টুর্নামেন্ট মাঠে গড়ানোর কথা থাকলেও টাকার অভাবে আসরটির আয়োজন করতে ব্যর্থ হয়েছে বাফুফে। সব কিছু মিলিয়ে খারাপ সময় পার করছে বাফুফে। এবার ফুটবলকে সমানে এগিয়ে নিয়ে সরকারের কাছে সাহায্য চেয়েছে ফুটবল ফেডারেশন।

এর আগে সরকারের কাছে দেওয়া বাফুফের ৪২৭ কোটি টাকার প্রকল্প প্রস্তাব ভেস্তে গেছে বেশ আগে। তাই নতুন পথে হাঁটছে বাফুফে। বছরের সব আয়োজনের খরচ সরকারের কাছে চাইবে সংস্থাটি। এ বছর আরো ১৪টি আন্তর্জাতিক ফুটবল আসরে অংশ নেওয়ার জন্য সরকারের কাছে চার কোটি টাকা চাওয়ার পরিকল্পনা করেছে বাফুফে। বাফুফের বাজেট অনুযায়ী ১৪টি আসরের ব্যয় সাত কোটি টাকা। এর মধ্যে তিন কোটি টাকার সংকুলান হবে ফিফা-এএফসির তহবিল থেকে।

এই মৌসুম শেষ হতে বাকি আছে মাত্র ছয় মাস। এই সময়কালে সিনিয়র ও জুনিয়র পর্যায়ে সব আসরে অংশ নেওয়ার সম্ভাব্য বাজেট নিয়ে শনিবার আলোচনা হয়েছে বাফুফের জরুরি সভায়। সভা শেষে বাফুফে মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জাকির হোসেন চৌধুরী বলেছেন, পুরো বিষয়টি জানিয়ে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেব। আমাদের চার কোটি টাকার ঘাটতি বাজেটের কথা বলে তাদের কাছ থেকে সহযোগিতা চাইব। মন্ত্রণালয় কী বলে দেখি। এর পাশাপাশি আমরা স্পন্সরদের কাছ থেকেও অর্থ সংগ্রহের চেষ্টা করব। আশা করি মন্ত্রণালয় ইতিবাচক সাড়া দেবে।

অন্যদিকে কয়েক মাস আগে মেয়ে ফুটবলারদের মিয়ানমারে খেলতে পাঠানো নিয়ে বাফুফের নাটকে ক্ষুব্ধ ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। অলিম্পিক বাছাইয়ে নারীদল পাঠাতে না পারার দায় সরকারের ওপর চাপানোর চেষ্টা করেছিলো বাফুফে। এখন আবার সামনের ছয় মাসের পরিকল্পনা নিয়ে তারা মন্ত্রণালয়ের দ্বারস্থ। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা


 এনবিএস/ওডে/সি