ঢাকা, রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪ | ৬ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

চাচা-ভাতিজির প্রেম অতঃপর...


গোলাম মোস্তাফিজার রহমান মিলন   প্রকাশিত:  ০২ জুন, ২০২২, ০২:৩৫ পিএম

চাচা-ভাতিজির প্রেম অতঃপর...

ভালোবাসা বোঝেনা জাত ও বয়স। মানে না সম্পর্ক।দীর্ঘদিন ভালো বাসার পরে পছন্দের ছেলের সাথে বিয়ে হবে না এমন কষ্ট সহ্য করতে না পেরেই গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে শামিমা আক্তার (১৪) নামের নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (২ জুন) সকালে উপজেলার ছাতনী রাউতারা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।মৃত শামিমা আক্তার ওই গ্রামের এনতাজ আলীর মেয়ে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে হাকিমপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. মোঃ রাকিব হাসান বলেন,সকালে পরিবারের লোকজন মেয়েটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসে নিথর দেহে। কোন নড়াচড়া বা কোন পালস  ছিলো না।  হাসপাতালে নেওয়ার পূর্বেই তার মৃত্যু হয়েছে। তবে মেয়েটির গলায় দাগ রয়েছে। 

স্থানীয়রা জানান,তারা দুজন দুর সম্পর্কের চাচা ভাতিজি।তাদের সম্পর্ক ছিল দীর্ঘদিনের। তারা গতকাল রাতেই অন্যত্র গিয়ে বিবাহের পরিকল্পনা করে।এমন সময় মা বাবা জানতে পেরে তাকে বাধা দেয় এবং রাতে বুঝিয়ে রাখে। সকালে ঘুম থেকে উঠে সে গলায় উড়না পেছিয়ে ফাঁস দেয়। সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নেয় মা বাবা। হাসপাতালে নিলে কর্মরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

হাকিমপুর থানা অফিসার ইনচার্জ খাইরুল বাশার শামীম জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পাই, সাতনি রাওতারা গ্রামে ৯ম শ্রেনীর এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়েছে এমন সংবাদে পুলিশের একটি ফোর্স ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। সুরতহাল রির্পোট তৈরি করার জন্য লাশটি ময়না তদন্তে দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।