ঢাকা, রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪ | ৬ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

শেখ জামালকে হারালো মোহামেডান, কর্নেলিয়াসের হ্যাটট্রিকে আবাহনীর জয়


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ২৫ মে, ২০২৪, ১১:০৫ পিএম

শেখ জামালকে হারালো মোহামেডান, কর্নেলিয়াসের হ্যাটট্রিকে আবাহনীর জয়

শেখ জামালকে হারালো মোহামেডান, কর্নেলিয়াসের হ্যাটট্রিকে আবাহনীর জয়

 প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে চট্টগ্রাম আবাহনীর বিপক্ষে খেলতে নেমে আবাহনী লিমিটেড। ম্যাচে দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও কর্নেলিয়াসের দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে ভর করে ৩-২ ব্যবধানে চট্টগ্রামকে হারিয়েছে আবাহনী লিমিটেড। অন্য ম্যাচে সুলেমানে দিয়াবাতের জোড়ায় মোহামেডান স্পোর্টিং ৩-১ গোলে জিতেছে শেখ জামালের বিপক্ষে।

শনিবার (২৫ মে) মুন্সীগঞ্জে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ফ্লাইট লে.মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে ৭৯ মিনিট পর্যন্ত চট্টগ্রাম আবাহনী দুই গোলে এগিয়ে থেকে জয়ের সুবাস পাচ্ছিল। ম্যাচের ২০ মিনিটে চট্টগ্রাম আবাহনী এগিয়ে যায়। ৬৭ মিনিটে চট্টগ্রাম আবাহনী ব্যবধান দ্বিগুণ করে। রায়হানের অ্যাসিস্টে রিয়াজ উদ্দিন লক্ষ্যভেদ করে আবাহনী লিমিটেডকে আবারও ব্যাকফুটে ফেলে দেন।

শেষ ১০ মিনিটে আবাহনীর ঝলক দেখাতে শুরু করে। ৮০তম মিনিটে আন্দ্রেস ক্রসিয়ানির দল এক গোল শোধ দেয়। পেনাল্টি থেকে কর্নেলিয়াস স্টুয়ার্ট গোলকিপারের বিপরীত দিক দিয়ে জাল কাঁপিয়ে ব্যবধান কমান। 

৯০ মিনিটে আবাহনী লিমিটেড সমতা ফেরায়। যোগ করা সময়ে স্টুয়ার্টের দারুণ গোলে ক্রুসিয়ানির দল তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করে। বক্সের বাইরে থেকে জামাল ভূঁইয়ার অ্যাসিস্টে কর্নেলিয়াস ডান পায়ের জোরালো শটে গোলকিপারকে পরাস্ত করেন। ১৯ গোল করে শীর্ষেই আছেন সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনেডিয়ান্সের স্ট্রাইকার।

আরেক ম্যাচে গোপালগঞ্জে শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে শেখ জামালকে হারিয়েছে মোহামেডান। ৩৬ মিনিটে আরিফ হোসেনের অ্যাসিস্টে দিয়াবাতে প্রথম গোল করে দলকে এগিয়ে নেন। পরের গোলে তিনি অ্যাসিস্ট করেন। ইমানুয়েল সানডে ব্যবধান দ্বিগুণ করে শেখ জামালকে পিছিয়ে দেন।

৯০ মিনিটে দিয়াবাতে একক প্রচেষ্টায় বক্সে ঢুকে আগুয়ান গোলকিপারের পাশ দিয়ে বল জড়ান জালে। তিনি ১৭ গোল করে কর্নেলিয়াসের পরই অবস্থান করছেন।যোগ করা সময়ে খোলমাতভ পেনাল্টি থেকে মোহামেডানকে এক গোল শোধ দেন।  

এদিকে শেখ রাসেলের কাছে ৩-২ গোলে হেরে ব্রাদার্স ইউনিয়নের প্রিমিয়ার লিগ থেকে বিদায় নিশ্চিত হয়েছে।

আবাহনী ও মোহামেডান ১৭ ম্যাচে ৩২ পয়েন্ট নিয়ে রানার্সআপ হওয়ার দৌড়ে আছে। লিগে শেষ ম্যাচে দুই ঐতিহ্যবাহী দল মুখোমুখি হবে। সেই ম্যাচ যে দল জিতবে তারাই হবে রানার্সআপ। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি