ঢাকা, রবিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২২ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
Logo
logo

স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেননি, ভিডিও কলে সন্তান প্রসব করালেন চিকিৎসক! মৃত্যু সদ্যোজাতের


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৭:০৯ পিএম

স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেননি, ভিডিও কলে সন্তান প্রসব করালেন চিকিৎসক! মৃত্যু সদ্যোজাতের

স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেননি, ভিডিও কলে সন্তান প্রসব করালেন চিকিৎসক! মৃত্যু সদ্যোজাতের

 প্রসব-বেদনা নিয়ে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে গিয়েছিলেন মহিলা। কিন্তু সেখানে আদৌ কোনও চিকিৎসকই (doctor) ছিলেন না। ছিলেন শুধু নার্সরা (nurse)। অবশেষে তাঁদের হাতেই প্রসব (delivery) হল অন্তঃসত্ত্বা মহিলার। আর ভিডিও কলে (video call) পুরো ঘটনার নির্দেশ দিলেন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ‘অনুপস্থিত’ চিকিৎসক। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। মৃত্যু (died) হল সদ্যোজাতের (infant)।
ঘটনাটি ঘটেছে তামিলনাড়ুর চেঙ্গালপেট জেলার একটি গ্রামে। জানা গেছে অন্তঃসত্ত্বা মহিলার নাম পুষ্পা। ৩২ বছর বয়সি ওই মহিলা দ্বিতীয়বারের জন্য অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। প্রসব-বেদনা শুরু হওয়ায় গ্রামের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেই সময় ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে কর্তব্যরত চিকিৎসকদের কেউই উপস্থিত ছিলেন না। কিন্তু মহিলার অবস্থা ক্রমশ খারাপ হতে শুরু করায় উপস্থিত নার্সরাই তাঁকে প্রসব করানোর সিদ্ধান্ত নেন। জানা গেছে, এই সময় ভিডিও কলের মাধ্যমে অস্ত্রোপচার কক্ষে উপস্থিত ছিলেন আর বালু নামে এক চিকিৎসক। তিনি ধাপে ধাপে প্রসবের সম্পূর্ণ পদ্ধতি নার্সদের বুঝিয়ে দেন।
কিন্তু জানা গেছে, পুষ্পাদেবীর স্ক্যান রিপোর্টে আগেই দেখা গিয়েছিল, ব্রিচ প্রেজেন্টেশনে রয়েছে শিশুটি। অর্থাৎ, ভূমিষ্ঠ হওয়ার সময় শিশুটির মাথার বদলে আগে পা বের হওয়ার কথা। কিন্তু প্রসবের সময় এই জটিলতা দেখে ভয় পেয়ে যান নার্সরা।
জানা গেছে, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হতে শুরু করে প্রসূতির। এরপরেই মৃত সন্তান প্রসব করেন তিনি।
এই ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ প্রসূতির পরিবার। তাঁদের দাবি, ভিডিওকলে এভাবে প্রসব করানোর ফলেই মৃত্যু হয়েছে সদ্যোজাতের। সন্তানের মৃত্যুর বিষয়ে ইতিমধ্যেই বিচার চেয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছে মহিলার পরিবার। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। তবে শিশুটির কোনও জন্মগত জটিলতা ছিল কিনা, তা স্পষ্ট নয়।

খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২২/একে