ঢাকা, বুধবার, জুলাই ২৪, ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

শুক্রবার বিশ্বকাপে ৬ষ্ঠবার আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডস মুখোমুখি


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ০৮ ডিসেম্বর, ২০২২, ১১:১২ পিএম

শুক্রবার বিশ্বকাপে ৬ষ্ঠবার আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডস মুখোমুখি

 শুক্রবার বিশ্বকাপে ৬ষ্ঠবার আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডস মুখোমুখি

সৌদি আরবের কাছে পরাজয় দিয়ে যাদের কাতার বিশ্বকাপে যাত্রা, সেই আর্জেন্টিনা একে একে তিন ম্যাচ জিতে এখন কোয়ার্টার ফাইনালে। এবার দলটির প্রতিপক্ষ তরুণদের নিয়ে গড়া শক্তিশালী নেদারর‌্যান্ডস। কাতার বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল পর্বে সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচের একটি হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডসের ম্যাচটি। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় খেলা শুরু হবে।

২০১৪ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালের পর এবার কোয়ার্টার ফাইনালেই দেখা হয়ে যাচ্ছে এই দুই দলের। কাতার বিশ্বকাপে দুই দলের জন্যই এই ম্যাচটি হতে চলেছে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কঠিন ম্যাচ। ইতিহাস-পরিসংখ্যান এর ক্ষেত্রে ডাচদের পক্ষে হলেও আর্জেন্টিনার পক্ষে ব্যবধান গড়ে দিতে পারেন লিওনেল মেসি।

বিশ্বকাপের মঞ্চে আর্জেন্টিনা-নেদারল্যান্ডসের লড়াই সবসময় ছড়িয়েছে রোমাঞ্চ। এখন পর্যন্ত বিশ্বমঞ্চে পাঁচবার একে অন্যের মুখোমুখি হয়ে ডাচরা  জয় পেয়েছে দুবার, দুবার হয়েছে ড্র। বাকি এক ম্যাচে জিতেছে আর্জেন্টিনা। আর্জেন্টিনার জন্য একমাত্র জয়টি অবশ্য সুখস্মৃতি হিসেবে থেকে যাবে অমলিন। ১৯৭৮ বিশ্বকাপে নেদারল্যান্ডসকে ৩-১ গোলে হারিয়েই প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছিল আর্জেন্টিনা।

নেদারল্যান্ড প্রথম জয়টা পেয়েছিল ১৯৭৪ বিশ্বকাপে। ৪-০ গোলে আর্জেন্টিনাকে হারিয়েছিল ইয়োহান ক্রুইফের দল। দ্বিতীয় জয়টা ১৯৯৮ সালের কোয়ার্টার ফাইনালে। বিশ্বকাপে দুদলের শেষ দেখাটা আট বছর আগের। ব্রাজিল বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল দুদল। সে ম্যাচে নির্ধারিত সময় ও অতিরিক্ত সময়েও কেউ হারাতে পারেনি কাউকে। শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে জয় পায় আর্জেন্টিনা। টাইব্রেকারে জেতায় সে ম্যাচের ফল আদতে পরিসংখ্যানের খাতায় লেখা ড্র হিসেবেই।

গত বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করতে ব্যর্থ হওয়া নেদারল্যান্ডস এবার বিশ্বকাপে ফিরেই উঠে গেছে কয়ার্টার ফাইনালে। এ’ গ্রুপে কাতার, ইকুয়েডর ও সেনেগালের সঙ্গে লড়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই শেষ ষোলোয় জায়গা করে নিয়েছিলো ডাচরা। শেষ ষোলোয় যুক্তরাষ্ট্রকেও হারিয়েছে ৩-১ গোলে। তবে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনার ম্যাচটা হবে এসব ম্যাচের চেয়ে আরও অনেকগুণ বেশি কঠিন।

এনবিএস/ওডে/সি