ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত আফগানিস্তানের পাশে ভারত, সাহায্যের আশ্বাস দিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি

: ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত আফগানিস্তানের পাশে দাঁড়াল ভারত। আফগানদের জন্য সমস্ত সম্ভব সাহায্যের আশ্বাস দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন, দেশটির আমজনতার কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিতে ভারত তৈরি।

বুধবার ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে আফগানিস্তান (Afghanistan)। আফগান-পাক সীমান্তবর্তী খোস্ত শহর থেকে প্রায় ৪৪ কিলোমিটার দূরে ছিল ভূমিকম্পের উৎসস্থল। কম্পনের ফলে পাকতিয়া প্রদেশে ধসে পড়ে বহু বাড়ি। আফগানিস্তানের দুর্যোগ মোকাবিলা বিভাগের তরফে জানানো হয়, আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও ভারতের প্রায় ৫০০ কিলোমিটার অঞ্চল ভূমিকম্পের কবলে পড়েছে। তবে ক্ষতি হয়েছে আফগানিস্তানেরই। তালিবানের বিপর্যয় মোকাবিলা মন্ত্রকের প্রধান নাসিম হাক্কানি জানাচ্ছে, অধিকাংশ মৃত্যুই হয়েছে পাকতিয়া প্রদেশে। শেষ পাওয়া খবরের মতে, মৃতের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে।

এহেন পরিস্থিতিতে টুইট করে শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি লেখেন, “আফগানিস্তানে ভয়াবহ ভূমিকম্পে প্রাণহানির ঘটনায় আমি মর্মাহত। এই কঠিন সময়ে আফগানিস্তানের পাশে আছে ভারত। দ্রুত সমস্ত ধরনের ত্রাণ সামগ্রী পাঠাতে আমরা তৈরি।”

উল্লেখ্য, আফগান সাংবাদিক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক হেদায়াতুল্লা পাক্তিন জানান, আফগানিস্তানের ওই অঞ্চলগুলির সাধারণ মানুষ এতই দরিদ্র, তাঁরা মাটি, পাথর ও অন্যান্য উপাদান জড়ো করেই বাড়ি বানান। পাকা বাড়ি এখানে দুর্লভ। তাই ভূমিকম্পের ধাক্কায় সমস্ত বাড়িই কমবেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এমনিতেই তালিবান আমলে সেদেশের দারিদ্র চরমে পৌঁছেছে। এই অবস্থায় এমন ভূমিকম্পে জনজীবন প্রবল ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হল বলেই মনে করা হচ্ছে।

আফগানিস্তানের সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে একর পর এক বাড়ি কার্যত ধূলিসাৎ হয়ে গিয়েছে। শয়ে শয়ে মৃতদেহ কম্বলে জড়িয়ে রাখা হয়েছে। হেলিকপ্টারের মাধ্যমে দুর্গম জায়গাগুলিতে উদ্ধারকাজ চালানো হলেও তা যে প্রয়োজনের তুলনায় কিছুই নয়, সেই কথা স্পষ্ট। তালিবান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের আধিকারিক সালাউদ্দিন আয়ুবি জানিয়েছেন, সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পাকতিয়া প্রদেশ। পরিস্থিতির মোকাবিলাত আন্তর্জাতিক মঞ্চের কাছে সাহায্য চেয়েছে তালিবান।সংবাদ প্রতিদিন /এনবিএস/২০২২/একে news