ঢাকা, শুক্রবার, জুন ১৪, ২০২৪ | ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
Logo
logo

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু আজ


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ১৮ এপ্রিল, ২০২৩, ০৫:০৪ পিএম

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু আজ

 গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু আজ

২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ পদ্ধতিতে দেশের ২২টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক প্রথম বর্ষে শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু হয়েছে আজ মঙ্গলবার (১৮ এপ্রিল)। দুপুর ১২টা থেকে ৩০ এপ্রিল (রোববার) রাত ১১.৫৯ মিনিটের মধ্যে শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন করতে হবে।

আবেদন শেষে আগামী ২০ মে 'বি' ইউনিট, ২৭ মে 'সি' ইউনিট ও ৩ জুন 'এ' ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এবছরও ওয়েবসাইটে প্রদত্ত পরীক্ষা কেন্দ্রের তালিকা থেকে শিক্ষার্থীরা একটি কেন্দ্র পছন্দ করতে পারবেন।

সোমবার (১৭ এপ্রিল) সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার সদস্য-সচিব ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা তাদের পঠিত বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে এবারও যে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের যে কোন বিভাগে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন। ভর্তি পরীক্ষার সকল তথ্য গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটে (www.gstadmission.ac.bd) পাওয়া যাবে।

আবেদন যোগ্যতা হিসেবে ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০১৮, ২০১৯ ও ২০২০ সালের এসএসসি বা সমমান এবং ২০২১ ও ২০২২ সালের এইচএসসি বা সমমান, ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি (ভোকেশনাল), এ লেভেল এবং অন্যান্য সমমান পরীক্ষায় (সমমান নির্ধারণ কমিটি কর্তৃক অনুমোদনক্রমে) উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরাই কেবল ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

 বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত যোগ্যতা থাকা সাপেক্ষে যথাক্রমে ইউনিট 'এ', ইউনিট 'বি' ও ইউনিট 'সি' তে আবেদন করবেন।

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় ইউনিট ভিত্তিক আবেদনের যোগ্যতা ভিন্ন। 'এ' ইউনিটে বিজ্ঞান শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ সর্বমোট জিপিএ কমপক্ষে ৮.০০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞান শাখাসহ মাদ্রাসা বোর্ড (বিজ্ঞান) এবং ভোকেশনাল (এইচএসসি) বিজ্ঞান শাখা হিসাবে বিবেচিত হবে।

'বি' ইউনিটে মানবিক শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০ সহ সর্বমোট জিপিএ কমপক্ষে ৬.০০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের মানবিক শাখাসহ মিউজিক, গার্হস্থ্য অর্থনীতি এবং মাদ্রাসা বোর্ড (সাধারণ, মুজাব্বিদ) মানবিক শাখা হিসাবে বিবেচিত হবে।

'সি' ইউনিটে বাণিজ্য শাখা হতে এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ আবেদনকারীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) ন্যূনতম জিপিএ ৩.০০ সহ সর্বমোট জিপিএ কমপক্ষে ৬.৫০ থাকতে হবে। সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের বাণিজ্য শাখাসহ ডিপ্লোমা ইন বিজনেস স্টাডিজ, ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা (এইচএসসি) এবং ডিপ্লোমা ইন কমার্স বাণিজ্য শাখা হিসাবে বিবেচিত হবে।

প্রতিটি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষার নির্ধারিত ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম ৩০ নম্বর (পাস নাম্বার) পেতে হবে। প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা যাবে। শুধুমাত্র গুচ্ছভুক্ত সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরাই যোগ্যতা থাকা সাপেক্ষে পছন্দকৃত বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করতে পারবে।

গুচ্ছ ভর্তি সংক্রান্ত টেকনিক্যাল কমিটির আহবায়ক এবং চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. নাছিম আখতার বলেন, ইতিমধ্যেই ভর্তি পরীক্ষার জন্য আমরা সভায় সার্বিক দিক আলোচনা করেছি। ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে সবকিছু বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে। এবার ভর্তি কার্যক্রম দ্রুত শেষ করার সর্বোচ্চ চেষ্টা থাকবে।

এদিকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর এক উপাচার্য জানান, এবার সময়ক্ষেপণ রোধে তিনটি মাইগ্রেশনের মাধ্যমেই ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে প্রথমবারের মতো দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ ভর্তি পদ্ধতিতে অংশ নেয়। পরবর্তীতে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে দ্বিতীয়বারের মত আয়োজিত গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় নতুন ২ বিশ্ববিদ্যালয় সহ মোট ২২টি বিশ্ববিদ্যালয় অংশ নেয়। এবারও ২২টি বিশ্ববিদ্যালয়ের অংশগ্রহণে তৃতীয়বারের মত দেশে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এনবিএস/ওডে/সি