ঢাকা, রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪ | ৬ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

ইউক্রেন যুদ্ধে বড় সাফল্য দাবি জেলেনস্কির, মস্কোর অস্বীকার


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ১২ জুন, ২০২৩, ০৯:০৬ পিএম

ইউক্রেন যুদ্ধে বড় সাফল্য দাবি জেলেনস্কির, মস্কোর অস্বীকার

 ইউক্রেন যুদ্ধে বড় সাফল্য দাবি জেলেনস্কির, মস্কোর অস্বীকার

কৃষ্ণসাগরের হামলায় নৌ ড্রোন ব্যবহার করেছে কিয়েভ। কিন্তু মস্কো বলছে রাশিয়ার রণতরীর ওপর ইউক্রেনের ‘বড় ধরনের’ হামলা প্রতিহত করা হয়েছে। রাশিয়া বলেছে, উচ্চ-গতিসম্পন্ন এক ঝাঁক নৌ ড্রোন দিয়ে রোববার ইউক্রেন ওই হামলা চালিয়েছিল। রাশিয়ার বিমানবাহী রণতরীটি কৃষ্ণসাগরে স্থাপিত গ্যাস পাইপলাইনগুলোকে সুরক্ষা দেয়।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় রোববার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, হামলার সময় ‘আরকিউ-৪ গ্লোবাল হক’ মডেলের একটি মার্কিন সামরিক ড্রোন কৃষ্ণসাগরের আকাশে টহল দিচ্ছিল। ‘প্রিয়াজোভি’ নামক রুশ রণতরীটি কৃষ্ণসাগরের দক্ষিণ-পূর্ব অংশে স্থাপিত তুর্কস্ট্রিম ও ব্লু স্ট্রিম গ্যাস পাইপলাইনের নিরাপত্তা রক্ষার কাজে নিয়োজিত রয়েছে। রোববারের ব্যর্থ হামলার পর রণতরীটি তার দায়িত্ব পালন অব্যাহত রেখেছে।

রুশ সূত্রগুলো জানিয়েছে, প্রিয়াজোভি রণতরীতে দু’টি স্বয়ংক্রিয় একে-৩০৬ মডেলের কামান এবং ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য একাধিক মিসাইল লঞ্চার রয়েছে। এছাড়া রুশ সেনারা বিগত ৪৮ ঘণ্টায় জার্মানিতে তৈরি ইউক্রেনের অন্তত সাতটি লেপার্ড ট্যাংক ও আমেরিকায় তৈরি পাঁচটি ব্রাডলি সাঁজোয়া যান ধ্বংস করে।

এদিকে ইউক্রেনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের তিনটি গ্রামের নিয়ন্ত্রণ পুনরায় নেওয়ার দাবি করেছে দেশটির সরকার। রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে পাল্টা হামলা শুরুর পর এ জয় পাওয়ার দাবি করা হলো। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, ইউক্রেনের দোনেৎস্ক অঞ্চলের ব্লাহোদান্তে ও নেস্কুচনে এলাকায় ইউক্রেনীয় বাহিনী জয় উদ্যাপন করছে।

ইউক্রেনের উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী জানান, ব্লাহোদান্তে ও নেস্কুচনের পাশাপাশি মাকারিভকা এলাকারও নিয়ন্ত্র্রণ নেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত শনিবার প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি রুশ বাহিনীর বিরুদ্ধে পাল্টা হামলা শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন। গত সোমবার থেকে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে ইউক্রেনীয় বাহিনী। তবে পরিকল্পিত এ পাল্টা হামলার শুরুর বিষয়ে শুরুতে মুখ খুলছিল না ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ।

অন্যদিকে এ পাল্টা হামলা ঠেকিয়ে দেওয়ার দাবি করে রাশিয়া। গত শুক্রবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেন, এখন পর্যন্ত পাল্টা হামলায় সাফল্য পেতে ব্যর্থ হয়েছে ইউক্রেনীয় বাহিনী। তবে তাদের ‘হামলার সম্ভাবনাকে’ এখনো একেবারে ধ্বংস করে দেওয়া যায়নি।সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

 এনবিএস/ওডে/সি