ঢাকা, বুধবার, জুলাই ২৪, ২০২৪ | ৯ শ্রাবণ ১৪৩১
Logo
logo

জাজিরা প্রান্তে পদ্মাসেতু ঘিরে ভিড় বাড়ছে


এনবিএস ওয়েবডেস্ক     প্রকাশিত:  ০১ জুন, ২০২২, ০৬:০৬ পিএম

জাজিরা প্রান্তে পদ্মাসেতু ঘিরে ভিড় বাড়ছে

জাজিরা প্রান্তে পদ্মাসেতু ঘিরে ভিড় বাড়ছে । সেতু একনজর দেখতে পদ্মাপাড়ে আসছেন নানা বয়সী মানুষ সড়কের কাজ শেষ হওয়ার মধ্য দিয়ে প্রস্তÍুত  পদ্মা সেতু। ২৫ জুন উদ্বোধনের পর যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে এ সেতুটি । এরই মধ্যে সেতু ঘিরে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার বাসিন্দাদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়িয়েছে পদ্মার জাজিরা প্রান্ত।স্বপ্নের পদ্মা সেতু একনজর দেখতে এখানে প্রতিদিন সকাল বিকেল ভিড় করছে নানা  বয়সী কয়েক’শ দর্শনার্থী। কাছে যেতে না পারলেও স্মৃতি হিসেবে রাখতে দূর থেকেই সেতুর সঙ্গে তুলে নিচ্ছেন সেলফি বা স্থিরচিত্র। আবার কেউ করছেন ভিডিও চিত্রও।

পদ্মাসেতু এলাকা ঘুরে দেখা যায়, জাজিরা উপজেলার পূর্ব নাওডোবায় পদ্মার তীরবর্তী বিভিন্ন পয়েন্টে মানুষের প্রচুর ভিড় দেখা যায়। স্বপ্নের সেতু দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে কেউ ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটরসাইকেল সহ বিভিন্ন যানবাহনে পরিবার পরিজন , বন্ধু কিংবা প্রিয়জনকে নিয়ে আসছেন পদ্মাপাড়ে। সেতুর পূর্ণাঙ্গ রূপ দেখতে অনেকে ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন আশপাশ। কেউ কেউ স্মৃতির অ্যালবামে সংরক্ষণে রাখতে মোবাইল ক্যামেরায় নানা ভঙ্গিতে তুলছেন ছবি। আবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছবি পোস্ট করে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করে দিচ্ছেন স্ট্যাটাস। পদ্মা সেতুর পূর্ণাঙ্গ অবস্থায় দেখতে পেয়ে অনেকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে।

পদ্মার জাজিরা প্রান্তে ঘুরতে আসা রুবি আক্তার, নিয়াজ আহম্মেদ, সাকিব  হাসানসহ কয়েকজন বলেন, পদ্মা সেতু করতে পারা আমাদের জন্য অনেক গর্বেরও আনন্দের । ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন হবে। এমন একটি অবকাঠামো মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে গেছে, স্মৃতিতে এটা থাকবে না তা কী হয়? সেতুর কাছে যেতে না পারলেও পেছনে সেতু রেখে ছবি তুলেই আপাতত আমরা খুশি আছি।

পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি ও শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছাবেদুর রহমান খোকা সিকদার বলেন,স্বপ্নের পদ্মাসেতু উদ্বোধন হবে এটা খুবই আনন্দের ও গর্বের । এজন্য প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানাই। পদ্মাসেতু ঘিরে জাজিরা প্রান্ত এখন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ২১ জেলার মানুষের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু। অনেকেই পদ্মাসেতু একনজর দেখতে ছুটে আসছেন জাজিরা প্রান্তে।এ সেতুর সাথে আমার অনেক স্বপ্ন জড়িত। আজ তা বাস্তবে রুপ নিয়েছ্ েএ জন্য মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।