ঢাকা, বুধবার, জুন ২৬, ২০২৪ | ১১ আষাঢ় ১৪৩১
Logo
logo

বাংলার ব্যবসা ও অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার: ফিরহাদ হাকিম


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৬:০৯ পিএম

বাংলার ব্যবসা ও অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার: ফিরহাদ হাকিম

বাংলার ব্যবসা ও অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার: ফিরহাদ হাকিম

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ও কোলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম কেন্দ্রীয় বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছেন, বাংলার ব্যবসা ও অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার।   

কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ তদন্তকারী এজেন্সি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-এর কর্মকর্তাদের তল্লাশি অভিযানে কোলকাতার গার্ডেনরিচ এলাকার পরিবহণ ব্যবসায়ী নিসার আহমেদ খান ও আমীর খানের বাসা থেকে ৮ কোটি টাকা উদ্ধার হওয়া প্রসঙ্গে তিনি আজ (শনিবার) ওই মন্তব্য করেন।   

তিনি কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করে বলেন, ‘ইডি’ রেইড, ‘ইডি’ রেইড করে একটা বার্তা দিতে চাচ্ছে যে, ব্যবসা বাংলায় কোরো না। ব্যবসা করতে করতে গেলে আমাদের রাজ্যে চলে এসো। এখানে থাকলে আমরা ব্যবসায়ীদের এরকমভাবে আক্রান্ত করব। যাতে বাংলার অর্থনীতিকে ভেঙে দেওয়ার পরিকল্পনা বলে আমার মনে হয়।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘এই যে একটা রেইড-রেইড বলে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে, যাতে বাংলার অর্থনীতিকে কীভাবে ভেঙে নষ্ট করে দেওয়া যায়।’     

এ ভাবে রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের দাবি, অবিজেপি রাজ্যগুলোর ভাবমূর্তি নষ্ট করে বিজেপিশাসিত রাজ্যে বিনিয়োগ ডেকে নিয়ে যেতে চাচ্ছে বিজেপি। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় বাংলার ব্যবসাকে ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপি। বিভিন্ন কেন্দ্রীয় এজেন্সি দিয়ে এমন ভীতির সঞ্চার করছে যে,  বিনিয়োগকারীরা যাতে এ রাজ্যে বিনিয়োগ না করে বিজেপিশাসিত রাজ্যে বিনিয়োগ করতে বাধ্য হন।’ 

ফিরহাদ এ প্রসঙ্গে আরও বলেন,  ‘নীরব মোদী হাজার হাজার কোটি টাকা ঋণ নিয়ে দেশ থেকে পালিয়ে গেছেন। তারপরে কী দেশের প্রধানমন্ত্রী কোন জবাব দিয়েছিলেন? এ ক্ষেত্রে কেন আমাদের জবাবদিহি করতে হবে? কেবলমাত্র বাছাই করে অবিজেপি  রাজ্যগুলোকে টার্গেট করা হচ্ছে। সেখানে ‘ইডি’, ‘সিবিআই’ ও ‘ইনকাম ট্যাক্স’  কর্মকর্তাদের দিয়ে রেইড করিয়ে মুখ বন্ধ করার চেষ্টা হচ্ছে, যাতে আমরা বিজেপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না করি।’     

অন্যদিকে,  বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা রাহুল সিনহা বলেছেন,  ‘বাংলার অর্থনীতি বলে কিছু নেই, তাই তা ভাঙার কোনও প্রশ্ন নেই। আজকে এ পর্যন্ত ৮ কোটি টাকা উদ্ধার হয়েছে। বাকি গণনা চলছে। কিন্তু এতে ফিরহাদের গায়ে লাগছে কেন? অর্থনীতি ভাঙার এত প্রশ্ন আসছে কেন? তার মানে উনি কী কালো টাকাকে বহাল রাখতে চাচ্ছেন? এই কালো টাকার সঙ্গে ওনার বা ওনার দলের কোনও সংযোগ আছে কী না সেটা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। সেজন্য অর্থনীতি ভাঙার প্রশ্ন, ‘ইডি’কে দিয়ে ভয় দেখানোর প্রশ্ন তোলা হচ্ছে কেন? কালো টাকাকে উনি সমর্থন করেন কী না, আগে উনি তার জবাব দিন’ বলেও মন্তব্য করেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা রাহুল সিনহা।খবর পার্সটুডে/এনবিএস/২০২২/একে