ঢাকা, রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪ | ১ বৈশাখ ১৪৩১
Logo
logo

গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনে আপ-এর মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী হলেন ইসুদান গাধভি


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ০৪ নভেম্বর, ২০২২, ০৮:১১ পিএম

গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনে আপ-এর মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী হলেন ইসুদান গাধভি

গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনে আপ-এর মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী হলেন ইসুদান গাধভি

ভারতের গুজরাট বিধানসভা নির্বাচনে ‘আম আদমি পার্টি’র (আপ) মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হয়েছেন ইসুদান গাধভি। আজ (শুক্রবার) আম আদমি পার্টির প্রধান ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল গুজরাটে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করেন। আগামী ১ ও ৫ ডিসেম্বর রাজ্যটিতে দুই পর্বে ভোটগ্রহণ করা হবে। ফল ঘোষণা হবে ৮ ডিসেম্বর। 

৪০ বছর বয়সী আপ-এর সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ইসুদান গাধভি গুজরাটের জনপ্রিয় টিভি সঞ্চালক এবং সাংবাদিক ছিলেন। আজ গাধভির নাম ঘোষণার সময় ‘আপ’ প্রধান ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের পাশে উপস্থিত ছিলেন ‘আপ’ নেতা ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবন্ত মান।    

১৮২ আসন সমন্বিত গুজরাটে হিন্দুত্ববাদী বিজেপি ২০১২ সালে ১১৫টি আসন জিতেছিল। ২০১৭ সালে তা কমে ৯৯টি আসনে পৌঁছে। যেখানে ১৯৯৫ সালের পর থেকে ৯৯টি আসন ছিল বিজেপির সর্বনিম্ন স্তর। এভাবে রাজ্যে বিজেপির আসন সংখ্যা ক্রমশই কমছে। রাজ্যটিতে বিজেপি ২০০২ সালে ১২৭টি এবং ২০০৭ সালে ১১৭টি আসন পেয়েছিল। যদিও তাদের ভোটের হার সবসময়ই ৫০ শতাংশের কাছাকাছি ছিল।  

২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনে ৯৯টি আসনে জিতে টানা পঞ্চমবারের জন্য ক্ষমতায় এসেছিল বিজেপি। অন্যদিকে, ২০১৭ সালের বিধানসভা ভোটে ৭৭টি আসনে জয়ী হয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অনেককেই চমকে দিয়েছিল প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেস। নির্দলীয় এবং অন্যরা পেয়েছিল ৬টি আসন। এ বার অবশ্য ‘আপ’ জোরকদমে নির্বাচনী ময়দানে নেমেছে। 

এবারের নির্বাচনে যে কারণগুলো বিজেপিকে উদ্বিগ্ন করছে তা হল- কৃষকদের অসন্তোষ, বিশেষ করে সৌরাষ্ট্র এবং উত্তর গুজরাট অঞ্চলে, বেকারত্ব নিয়ে মানুষের উদ্বেগ এবং বর্তমান রাজ্য নেতৃত্ব সম্পর্কে উৎসাহের অভাব। একই সময়ে, মোরবিতে সেতু ধসে ১৩০ জনেরও বেশি লোকের মৃত্যু সৌরাষ্ট্রে বিজেপির জন্য পরিস্থিতি আরও খারাপ করে তুলেছে। গত নির্বাচনে বিরোধী দল কংগ্রেস সৌরাষ্ট্র ও উত্তর গুজরাট থেকে বেশিরভাগ আসনে জিতেছিল।  

বিজেপি সূত্রে প্রকাশ- নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রাখার প্রয়াসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দলের নতুন কর্মসূচি ও প্রকল্প ঘোষণা করে রাজ্যে তার সফর আরও জোরদার করেছেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ গুজরাটে গত তিনদিন ধরে স্ক্রিনিং এবং প্রার্থীদের শর্টলিস্টিংসহ একাধিক বৈঠক করছেন।   

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাটে বর্তমানে বিজেপি’র ভূপেন্দ্র প্যাটেল মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্যে কোনও পরিবর্তন হবে না বলে ইতোমধ্যেই ইঙ্গিত দিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সিআর পাটিল। বিজেপি ছাড়াও কংগ্রেস ও ‘আপ’ও মাঠে রয়েছে। যদিও দু’টি দলই এখনও মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী ঘোষণা করেনি। কংগ্রেসের কথা বললে, ভারত সোলাঙ্কি, অর্জুন মোধওয়াদিয়া, শক্তিসিংহ গোহিল দলের মুখ্যমন্ত্রী পদের দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন। 

গতবারের চেয়ে এবারের নির্বাচন সম্পূর্ণ ভিন্ন। এর সবচেয়ে বড় কারণ হল- ২০১৭ সালে গুজরাটে বিজেপি এবং কংগ্রেসের মধ্যে সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছিল। কিন্তু এবার বেশ তেড়েফুঁড়ে ‘আপ’ও মাঠে নেমেছে।
” খবর পার্সটুডে/এনবিএস/২০২২/একে