ঢাকা, মঙ্গলবার, মার্চ ৫, ২০২৪ | ২২ ফাল্গুন ১৪৩০
Logo
logo

 সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি রাজ্যের, বেনামী নিয়োগ নিয়ে হাই কোর্টের নির্দেশে স্থগিতাদেশ


এনবিএস ওয়েবডেস্ক   প্রকাশিত:  ২৫ নভেম্বর, ২০২২, ০২:১১ পিএম

 সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি রাজ্যের, বেনামী নিয়োগ নিয়ে হাই কোর্টের নির্দেশে স্থগিতাদেশ

 সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি রাজ্যের, বেনামী নিয়োগ নিয়ে হাই কোর্টের নির্দেশে স্থগিতাদেশ

 SSC মামলায় নিয়োগ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে স্বস্তি রাজ্যের। বেনামী নিয়োগ নিয়ে হাই কোর্টের নির্দেশে ৩ সপ্তাহের জন্য স্থগিতাদেশ জারি করল শীর্ষ আদালত (Supreme Court)। ওই মামলায় সিবিআই (CBI) তদন্ত আপাতত নয়, শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকেও নিয়মিত আদালতে হাজিরা দিতে হবে না। স্থগিতাদেশে এমনই জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। 

এসএসসিতে (SSC) সুপার নিউমেরারি পোস্ট বা অতিরিক্ত শূন্যপদ তৈরি করে ‘অযোগ্য’দের নিয়োগের জন্য, স্কুল সার্ভিস কমিশনের আনা আবেদনের মামলায় সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। ওই অতিরিক্ত শূন্যপদ তৈরি কার মস্তিষ্কপ্রসূত, তা তদন্ত করে দেখুক সিবিআই। এমনই নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। রাজ্যের শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকে তলব করেছিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। কিন্তু শিক্ষাসচিবের হাজিরার সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডিভিশন বেঞ্চে যায় রাজ্য। সেখানেও বৃহস্পতিবার একই রায় বহাল ছিল। 

এরপর বৃহস্পতিবার রাতে সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় রাজ্য সরকার। শুক্রবার সকালে শুনানি হওয়ার কথা ছিল। সেই শুনানিতেই স্বস্তি পেল রাজ্য। তিন সপ্তাহের জন্য সিবিআই তদন্ত-সহ হাই কোর্টে এই মামলায় বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের একাধিক নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট।  শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকে আদালতে নিয়মিত হাজিরার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। সেই রায়েও জারি স্থগিতাদেশ। অর্থাৎ এখনই নিয়মিত হাজিরা দিতে হবে না।


যদিও এই স্থগিতাদেশের আগেই শুক্রবার হাই কোর্টে বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে ফের হাজিরা দিয়েছেন মণীশ জৈন। আর বিচারপতির প্রশ্নের উত্তরে তিনি বিস্ফোরক তথ্য দিয়েছেন বলে সূত্রের খবর।  শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশেই ‘অযোগ্যদের বাঁচাতে অতিরিক্ত শূন্যপদ’ তৈরি করা হয়েছিল। অর্থাৎ এই মামলায় ব্রাত্য বসুর নামও জড়িয়ে গেল। আর তা এই মামলায় নিঃসন্দেহে নয়া মাত্রা যোগ করল। 
খবর পার্সটুডে/এনবিএস/২০২২/একে