রাশিয়ার তেল শোধনাগারে ড্রোন হামলা; আগুন ধরে গেলেও নিয়ন্ত্রণে এসেছে

রাশিয়ার রোস্তভ অঞ্চলের একটি তেল শোধনাগারে আজ (বুধবার) সকালের দিকে ড্রোন হামলার পর আগুন ধরে যায়। তবে, জরুরি বিভাগের তৎপরতার কারণে তা দ্রুত নিভিয়ে ফেলা সম্ভব হয়েছে।

রাশিয়ার গণমাধ্যম আরটি জানিয়েছে, ইউক্রেনের একটি ড্রোন ওই শোধনাগারে আঘাত করে। ড্রোন হামলার পর তেল শোধনাগারটিতে আগুন ধরে গেলে অগ্নিনির্বাপক দল দ্রুতই আগুন নিভিয়ে ফেলে। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয় নি।  

রোস্তভ অঞ্চলের গভর্নর ভ্যাসিলি গোলুবেভ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টেলিগ্রামে লিখেছেন, “ড্রোন হামলার কারণে শোধনাগারে আগুন ধরে যায়। শোধনাগারের কাছ থেকে দুটি ড্রোনের ধ্বংসাবশেষ উদ্ধার করা হয়েছে। হামলার ঘটনা তদন্ত করার জন্য শোধনাগারের কাজকর্ম আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।”

সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ফুটেজ থেকে দেখা যায়, একটি ড্রোন তেল শোধনাগারের দিকে ধেয়ে আসছে এবং পূর্ণ গতিতে শোধনাগারে আঘাত করে। এরপরই সেখানে প্রচণ্ড বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায় এবং আগুন ধরে যায়। লুহানস্ক প্রজাতন্ত্রের সীমান্ত থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে এই ঘটনা ঘটেছে।

তেল শোধনাগারটি এক বিবৃতিতে বলেছে, তারা সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছে। শোধনাগারের প্রযুক্তিগত স্থাপনায় দুটি ড্রোন ওই হামলা চালায় বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।।খবর পার্সটুডে /এনবিএস/২০২২/একে news