পেলোসির বক্তব্য ‘প্রমাণ-অযোগ্য ও পক্ষপাতদুষ্ট’: আজারবাইজান

নাগরনো-কারাবাখ অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে চলমান যুদ্ধ সম্পর্কে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যানসি পেলোসির বক্তব্যকে ‘প্রমাণ-অযোগ্য ও পক্ষপাতদুষ্ট’ বলে প্রত্যাখ্যান করেছে আজারবাইজান। বাকু বলেছে, এ ধরনের বক্তব্যের ফলে সংঘর্ষরত দু’টি দেশের মধ্যে শান্তি স্থাপনের প্রচেষ্টা বাধাগ্রস্ত হবে।

পেলোসি গতকাল (রোববার) এক বক্তব্যে চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে শুরু হওয়া সীমান্ত সংঘাতের জন্য আজারবাইজানকে দায়ী করেন। তিনি দাবি করেন, আজারবাইজান আর্মেনিয়ার বিরুদ্ধে ‘অবৈধ’ ও ‘প্রাণঘাতী’ হামলা শুরু করেছে। আর্মেনিয়া সফরে গিয়ে দেশটির রাজধানী ইয়েরেভানে রোববার এ বক্তব্য দেন পেলোসি। তিন দিনের আর্মেনিয়া সফরের দ্বিতীয় দিনে পেলোসি আরো বলেন, মার্কিন পররাষ্ট্রনীতিতে আর্মেনিয়া গুরুত্বপূর্ণ স্থান দখল করে আছে।

পেলোসির এই বিতর্কিত ও উসকানিমূলক বক্তব্যের ব্যাপারে কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে আজারবাইজানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।এটি এক বিবৃতিতে বলেছে, “পেলোসি আজারবাইজানের বিরুদ্ধে যে প্রমাণ-অযোগ্য ও পক্ষপাতদুষ্ট অভিযোগ উত্থাপন করেছেন তা অগ্রহণযোগ্য। পেলোসি যে একজন আর্মেনিয়া-পন্থি রাজনীতিবিদ তা সবাই জানে।” বিবৃতিতে আরো বলা হয়, “এই মার্কিন কর্মকর্তার বক্তব্যে আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও সম্পর্ক স্বাভাবিক করার প্রচেষ্টা বাধাগ্রস্ত হবে।” পেলোসির বক্তব্যকে ‘আর্মেনিয়ার প্রচারণার অংশ’ বলে মন্তব্য করেছে আজারবাইজানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর মধ্যরাতে আর্মেনিয়ার ও আজারবাইজানের মধ্যে সর্বশেষ সীমান্ত সংঘর্ষ শুরু হয়।আর্মেনিয়া অভিযোগ করেছে, দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় গোরিস, কাপান ও জেরমুক শহরে ড্রোনের সাহায্যে হামলা চালিয়েছে আজারবাইজানের সেনাবাহিনী। বাকু ওই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, আর্মেনিয়ার সেনাবাহিনী বড় ধরনের উসকানিমূলক হামলা চালানোর পর আজারবাইজান তার জবাব দিয়েছে মাত্র। নতুন করে ছড়িয়ে পড়া এ সংঘাতে দু’দেশের অন্তত ২০০ সেনা নিহত এবং বেসামরিক নাগরিকসহ এক হাজারের বেশি মানুষ আহত হয়েছে।
খবর পার্সটুৃডে/এনবিএস/২০২২/একে news