স্থায়ীভাবে বাংলাদেশ থেকে শিশু ও বয়স্কদের দূরদৃষ্টি ও বয়স্কদের ত্রুটিপূর্ণ ক্ষীণদৃষ্টির সমস্যা কমিয়ে আনতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ১০টি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার সমন্বয়ে স্বল্প এবং বিনামূল্যে চক্ষু সেবা প্রদানের লক্ষ্যে শেরপুরে সবার জন্য চক্ষু সেবা কর্মসূচীর পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ দুপুরে জেলা হাসপাতাল মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. অনুপম ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন হাসপাতালের সহকারি পরিচালক ডা. মো. জসিম উদ্দিন, সদর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. মোবারক হোসেন, চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. মোশাররফ হোসেন, ভিশন স্প্রিং এর সিভিসি কো-অর্ডিনেটর আব্দুর রকিব ভূঁইয়া, বিএনএসবি চক্ষু হাসপাতাল, ময়মনসিংহের সমন্বয়কারী শরিফুজ্জামান পরাগ, অরবিসের প্রোগ্রাম ম্যানেজার নুরুল কবীর  প্রমুখ।

সিভিসি কো-অর্ডিনেটর আব্দুর রকিব ভূঁইয়া জানান, জেলার ৩ লাখ ৭৫ হাজার ৪ শ ৪৪ জন শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষের চোখ পরীক্ষা করে প্রায় ৭০ হাজার চশমা প্রদান ও ৪ হাজার রোগীকে ছানিসহ চোখের বিভিন্ন অপারেশনের ব্যবস্থা এবং জেলাতে ৬টি ভিশন সেন্টার, ৪০৯জন স্বাস্থ্য সেবিকার মাধ্যমে কমিউনিটি চোখ পরীক্ষা কেন্দ্র, ১শ জন পল্লী চিকিৎসকের মাধ্যমে রিডিং গ্লাস সরবরাহ ও ১০টি আই মিত্র কেন্দ্র পরিচালনা করে আসছে। তিনি আরও জানান, জেলায় উক্ত কর্মসূচীর মাধ্যমে দৃষ্টিশক্তির উন্নয়নে চশমার ব্যবহার প্রথম পর্যায়ে ১৯% থেকে ৪০% এ উন্নীত হয়েছে। news