রুশ আর্মি-ওয়েগনার অন্তর্দ্বন্দ্ব, হেলিকপ্টার ভূপাতিত

রাশিয়ার ভাড়াটে বাহিনী ওয়েগনার গ্রুপের প্রধান ইয়েভজেনি প্রিগোজিন বলেছেন,   সেনাবাহিনীর একটি হেলিকপ্টার অসামরিক লোকদের ওপর গুলি বর্ষণ করেছে। সে সময় পিএমসি ওয়েগনার ইউনিট সেটিকে গুলি করে ভূপাতিত করেছে। এক অডিও ম্যাসেজে প্রিগোজিন  একথা বলেন। এদিকে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ‘গৃহ সংগাত বাধানোর’ চেষ্টার অভিযোগে প্রিগোজিনকে গ্রেপ্তার করার আহ্বান জানিয়েছে।

এরআগে তিনি বলেন, তার ইউনিটগুলো কয়েকমাস ধরে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে যুদ্ধ করার পর রাশিয়ায় প্রবেশ করেছে। তিনি বলেন, রাশিয়ার রোস্তভ শহরে ফিরে যাওয়ার সময় তারা কোন প্রতিরোধের সম্মুখীন হননি।

তবে তিনি বলেন, সামরিক বাহিনীর জেনারেল স্টাফ প্রধান জে: ভ্যালেরি গেরাসিমভের নির্দেশে  ওয়েগনারের ফিল্ড ক্যাম্পগুলোর ওপর হেলিকপ্টার গানশিপ ও কামানের গোলাবর্ষণ করা হয়েছে।

প্রিগোজিন অভিযোগ করেন যে, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সেরগেই শোইগুর সঙ্গে বৈঠকের পর জে: গেরাসিমভ এ নির্দেশ দেন। তারা ওয়েগনারকে ধ্বংস করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তিনি বলেন, ওয়েগনার যোদ্ধারা রোস্তভ অঞ্চলে প্রবেশ করার পর সীমান্তরক্ষীরা তাদেরকে স্বাগত জানান। এখন তারা শহরটিতে প্রবেশ করছেন।  প্রিগোজিন বলেন, চেক পয়েন্টগুলোতে নিয়োজিত নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত তরুণ সেনারা দাঁড়িয়ে থাকে এবং কোনরূপ বাঁধা দেয়নি। তিনি বলেন, তার যোদ্ধারা শিশুদের সঙ্গে যুদ্ধ করে না। প্রিগোজিন বলেন, ‘তবে কেউ আমাদের পথে বাঁধা হয়ে দাঁড়ালে আমরা তাকে ধ্বংস করে দেব এবং আমরা আমাদের গন্তব্যে না পৌঁছা পর্যন্ত অবশ্যই এগিয়ে যেতে থাকবো।’

এদিকে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, ওয়েগনার ও রুশ আর্মির মধ্যে দ্বন্দ্বের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ইউক্রেনের সেনারা ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের দীর্ঘদিনের রক্তক্ষয়ী রণাঙ্গন বাখমুতে অগ্রসর হওয়ার চেষ্টা করছে।

রাশিয়ার নিরাপত্তা সংস্থা এফএসবি শনিবার (২৪ জুন) এক বিবৃতিতে ‘গৃহ সংঘাত বাধানোর’ চেষ্টা করার জন্য ওয়েগনার প্রধানকে অভিযুক্ত করে তাকে গ্রেপ্তার করতে তার যোদ্ধাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। রুশ বার্তাসংস্থাগুলো এখবর জানিয়েছে।

এতে বলা হয়, ‘পিগোজিনের বিবৃতি ও কাজের মাধ্যমে কার্যত রুশ ফেডারেশনের ভূখন্ডে একটি সিভিল কনফ্লিক্ট বা গৃহ সংঘাত শুরুর আহ্বান জানিয়েছেন, যা ফ্যাসিবাদী ইউক্রেনের বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধরত রাশিয়ার সেনাদের পিঠে ছুরিকাঘাত করার সামিল।’ বিবৃতিতে তাকে গ্রেপ্তার করার পদক্ষেপ নিতে ওয়েগনার যোদ্ধাদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

এদিকে মস্কোয় অন্তর্দ্বন্দ্বের প্রেক্ষাপটে ইউক্রেনের সেনাবহিনী বলেছে, ‘আমরা বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছি।’ ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ টুইটে একথা জানায়। ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা প্রধান কাইরাইলো বুদানোভ বলেছেন, ‘রাশিয়ার বিভিন্ন উপদল ক্ষমতা ও অর্থের জন্য এক অপরের মাংস খাচ্ছে।’সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

 এনবিএস/ওডে/সি

news