নেপালে শক্তিশালী ভূমিকম্পে শতাধিক নিহত, আহত শত শত

গত শুক্রবার নেপালের পশ্চিমাঞ্চলে জাজারকট এলাকায় ভূমিকম্পটি আঘাত হানে। এতে আহত হয়েছেন কয়েশ’। 
এনডিটিভি জানায়, নেপালে ভূমিকম্পে ৭০ জন নিহত হয়েছেন। এরআগে রয়টার্স মৃতের সংখ্যা ৬৯ বলে উল্লেখ করেছিল। টাইমস অব নেপাল জানায়, পশ্চিমাঞ্চলের কারনালি প্রদেশের প্রত্যন্ত গ্রামগুলোতে ১২৫ জন হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও শত শত। পুলিশ কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে নেপালের দৈনিক দ্য কাঠমান্ডু পোস্ট জানায় যে, ভূমিকম্পে ১২৮ জন নিহত হয়েছেন এবং ধ্বংসস্তুপ থেকে এখন পর্যন্ত আহত অবস্থায় অন্তত ১৪০ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে।

নেপালের জাতীয় ভূকম্পন কেন্দ্র বলেছে, ভূমিকম্পটি ৬.৪ মাত্রার ছিল। তবে জার্মান গবেষণা সংস্থা সায়েন্সেস (জিএফজে) পরে বলেছে, ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৫.৭। আর যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা বলেছে, ভূমিকম্পটি ৫.৬ মাত্রার ছিল জারকাটের কাছে ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল ভূগর্ভের ১১ মাইল গভীরে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভূমিকম্পে ওই এলাকার ঘরবাড়ি ও ভবনগুলো বিধ্বস্ত হয়েছে। উৎপত্তিস্থল থেকে ৫০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত নেপালের রাজধানী কাঠমন্ডু ও ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লিও এ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠে। নয়া দিল্লির অনেক ভবনও এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘনবসতিপূণ উত্তর ভারতেও এ ভূমিকম্প অনুভুত হয়।

জারকটের নালগাদ পৌরসভার ডেপুটি মেয়র সারিতা সিং নিজের বাসভবন ধসের নীচে চাপা পড়ে নিহত হয়েছেন। আহতদের চাউরঝড়ি রাকুমকটের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। মারাত্মক আহত লোকদেরকে সুরখেত ও নেপালগঞ্জ হাসপাতালে রেফার করা হচ্ছে।

নেপালের সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারগুলো উদ্ধার ও ত্রাণ কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে। নেপালের প্রধানমন্ত্রী ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চল সফরে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

ভূতাত্ত্বিক অবস্থানের কারণে অনেক আগে থেকেই নেপালে পশ্চিমে আট মাত্রার চেয়েও বড় ধরণের ভূমিকম্প আঘাত হানতে পারে বলে পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছিল। তবে আঘাত হানা এ ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল সে আশংকার চেয়ে কম। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি

news