বরগুনার তালতলী উপজেলার টেংরাগিরি ইকোপার্কে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সোহাগকে (২৬) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রবিবার (১৭ এপ্রিল) রাতে এ তথ্য জানান তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী মো. সাখাওয়াত হোসেন (তপু)।

তিনি বলেন, উপজেলার টেংরাগিরি ইকোপার্কে ঘুরতে আসা এক পর্যটককে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি হরিণবাড়িয়া এলাকায় একটি বাসায় অবস্থান করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার (১৬ এপ্রিল) রাতে অভিযান চালিয়ে চাঞ্চল্যকর ওই সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি সোহাগকে গ্রেফতার করা হয। পরে রবিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজি সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর সংঘবদ্ধ ধর্ষন মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতের মাধমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৩১ মার্চ বিকেলে আমতলী থেকে টেংরাগিরি ইকোপার্কে দুলাভাইর সাথে ঘুরতে আসেন এক নারী পর্যটক। পরে পরিচিত মোটরসাইকেলচালকের কাছে শালীকে রেখে দোকান থেকে পানি আনতে যান দুলাভাই। এই সুযোগে মটরসাইকেলচালকসহ চারজন তাকে গাছের সাথে বেঁধে ধর্ষণের পর অচেতন অবস্থায় তাকে পার্কে ফেলে রেখে যায়। পরে দুলাভাইয়ের সহযোগিতায় স্থানীয়রা ভুক্তভোগী নারীকে উদ্ধার করে। এই ঘটনায় দেশব্যপী সমালোচনার সৃষ্টি হয়।

এ ঘটনায় ঐ নারী বাদী হয়ে গত ১ এপ্রিল ৪ জনকে আসাসিকে করে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। পুলিশ বিভিন্ন সময়ে রুবেল (২৮), মিজানুর (২৪) ও জাহিদুল (২৭) গ্রেফতার করেন। শনিবার এই মামলার প্রধান আসামী সোহাগকে (২৫) কে গ্রেফতার করা হয়।

news