আটটা বিয়ের পরেও পরকীয়া! প্রেমিকের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় মা’কে দেখে ফেলতেই খুন সৎ ছেলে

 বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়েছে সৎ মা। প্রেমিকের সঙ্গে তাকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখেও ফেলেছিল সৎ ছেলে। যার পরিণতি হল মর্মান্তিক। প্রাণ গেল যুবকের। ছেলেকে খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার সৎ মা। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার (Nadia) কালীগঞ্জ থানা এলাকায়। মহিলার কীর্তিতে হতবাক প্রতিবেশীরা।

ধৃত মহিলার নাম পারভিনা বিবি। শোনা যায়, এখনও পর্যন্ত মোট আটটি বিয়ে করেছে সে। কয়েক বছর আগে নদিয়ার কালীগঞ্জ থানার পাগলাচণ্ডী এলাকার বাসিন্দা ভাটু শেখকে বিয়ে করে পারভিন। কর্মসূত্রে কলকাতায় থাকেন ওই ব্যক্তি। ফলে সৎ ছেলে আর পারভিন থাকতেন নদিয়ার বাড়িতে। সূত্রের খবর, সম্প্রতি ভাটু শেখের ছেলে খোসমহম্মদ খবর পান, বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়েছে সৎ মা। তবে সে বিষয়ে মুখ খোলেনি তিনি।


পুলিশ সূত্রে খবর, গত সপ্তাহে বাড়ি ফাঁকা থাকার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে প্রেমিককে বাড়িতে ডেকেছিল পারভিন। খোসমহম্মদ তাদের দু’জনকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলে। গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করে সে। এরপর সে পারভিনকে জানায়, বিষয়টা সকলকে জানিয়ে দেবে। অভিযোগ, এরপরই স্বামীর প্রথম পক্ষের ছেলেকে খুনের ছক কষে সে। সেই মতো রবিবার রাতে সৎ ছেলেকে হত্যা করে পারভিন। ঘর থেকে উদ্ধার হয় গলায় ফাঁস লাগানো দেহ। সোমবার রাতে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পুলিশের দ্বারস্থ হয় পরিবার। মঙ্গলবার সকালে গ্রেপ্তার করা হয়েছে পারভিনকে।

প্রসঙ্গত, স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, খোসমহম্মদের সঙ্গে পারভিনের সম্পর্ক কোনওদিনই ভাল ছিল না। প্রায়ই ছেলের উপর অত্যাচার করত ওই মহিলা। খেতে দিত না বলেও অভিযোগ। সোশ্যাল মিডিয়ায় এ বিষয়ে সরবও হয়েছিল খোসমহম্মদ। তবে পরিণতি যে এতটা ভয়ংকর হতে পারে, তা নিজেও হয়তো ভাবতে পারেননি তিনি।
খবর সংবাদ প্রতিদিন /এনবিএস/২০২২/একে news