আমাদের যুদ্ধ দেখতে প্রস্তুত হওয়া উচিত: মাহাথির

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং আধুনিক মালয়েশিয়ার স্থপতি ডা. মাহাথির বিন মোহাম্মদ বলেছেন, চীন সবসময় এক চীন নীতির কথা বলতো এবং তাইওয়ানকে তার অংশ বলে গণ্য করতো। পশ্চিমা প্রযুক্তি ও বিনিয়োগের ফলে অতীতে সেগুলো থেকে চীনই লাভবান হতো। কিন্তু, এখনকার মতো আগে এ নিয়ে যুদ্ধের উপক্রম লক্ষ্য করা যায় নি। এখন আমাদের সকলেরই যুদ্ধ দেখতে প্রস্তুত হওয়া উচিত। 

তিনি আরো বলেন, ৮০০ কোটি মানুষ পৃথিবীর জন্য অত্যধিক। জন বিস্ফোরণ মোকাবিলায় সরকারগুলো ব্যর্থ হয়েছে। অতিরিক্ত মানুষের বর্জ্য এবং অপচয়ে পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। আমরা জলবায়ু পরিবর্তনের মাধ্যমে ভয়াবহ বিপর্যয়ের শিকার হচ্ছি।

মালয়েশিয়ার লাংকাউই'তে দুই দিনব্যাপী (২৭-২৮ জুলাই) সামাজিক ব্যবসা সম্মেলনের সমাপনী দিনে নিজ বক্তব্যে ডা. মাহাথির আরো বলেন, পশ্চিমা দেশগুলোর প্রক্সি যুদ্ধের সর্বশেষ উদাহরণ 'ইউক্রেন যুদ্ধ'। চীন যদি একইভাবে যুদ্ধের উস্কানির ফলে নিজেকে যুদ্ধে জড়িয়ে ফেলে তাহলে তাতে দিনশেষে পশ্চিমা স্বার্থই রক্ষা পাবে। জাতিসংঘকে অগণতান্ত্রিক আখ্যা দিয়ে তিনি এই মূহুর্তে নতুন 'গণতান্ত্রিক বৈশ্বিক সরকার' গঠনের আহবান জানান।

উল্লেখ্য, ইউনূস সেন্টার এবং মালয়েশিয়ার স্বনামধন্য আল বুখারী ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সৌজন্যে ১৩তম সামাজিক ব্যবসা দিবস অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ বছর এই দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় 'ওয়ার, পিস অ্যান্ড ইকোনমিকস: ফিউচার অব হিউম্যান বিয়িংস' বা 'যুদ্ধ, শান্তি ও অর্থনীতি: মানবজাতির ভবিষ্যৎ'।

এবারের সম্মেলনে বিশ্বের ৩০টিরও বেশি দেশ থেকে ৭০০ জনেরও বেশি ডেলিগেট অংশ নিচ্ছেন। আজ (২৮ জুলাই) এই সম্মেলনের দ্বিতীয় এবং সমাপনী দিন।
সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি
 

news