লাহোরে বায়ুদূষণ: জরুরি অবস্থা জারি, সপ্তাহে ৪ দিন ছুটি ঘোষণা

শীতের শুরুতেই ভয়াবহ বায়ুদূষণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পাকিস্তানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ পাঞ্জাব। পরিস্থিতি এতোটাই নাজুক যে, বায়ুদূষণের কারণে পাঞ্জাবের রাজধানী লাহোরসহ উত্তর-পূর্ব পাকিস্তানের বেশ কিছু শহরে স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।

এছাড়া সাপ্তাহিক ছুটি এক দিনের জায়গায় বাড়িয়ে করা হয়েছে চারদিন। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই নির্দেশনা বহাল থাকবে বলেও জানানো হয়েছে। মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে কথা বলার সময় উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় পাঞ্জাব প্রদেশের অন্তর্র্বতীকালীন মুখ্যমন্ত্রী মহসিন নকভি এসব কথা জানান। তিনি বলেন, এখন থেকে অফিস, স্কুল, কলেজ, সিনেমা, পার্ক এবং অন্যান্য পাবলিক প্লেস রোববার ছাড়াও পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বৃহস্পতিবার, শুক্রবার এবং শনিবারও বন্ধ থাকবে।

তবে বাজার ও দোকানপাট বন্ধ থাকবে শনিবার ও রোববার। মুখ্যমন্ত্রী মহসিন নকভি বলেছেন, ‘ক্রমবর্ধমান ধোঁয়াশার কারণে চলমান পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত লাহোর, গুজরানওয়ালা, হাফিজাবাদ এবং নানকানা সাহিব জেলায় স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা জারি থাকবে।’

তিনি বলেন, প্রশাসন ইতোমধ্যেই উচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করেছে এবং ফসল পোড়ানো ও বাতাসে ধোঁয়াশা সৃষ্টির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ ত্বরান্বিত করছে। এ ব্যাপারে তাদেরকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

লাহোর শহরটি পাঞ্জাব প্রদেশের রাজধানী এবং এখানে প্রায় ১ কোটি ৪০ লাখ মানুষ বাস করেন। বিষাক্ত ধোঁয়ার স্তরে আচ্ছন্ন এই শহরটি বর্তমানে নয়াদিল্লি এবং ঢাকার পাশাপাশি বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহরগুলোর মধ্যে একটি।

 নাকভি অবশ্য লাহোরের এই বায়ুদূষণের জন্য প্রতিবেশী ভারত থেকে বাতাসে ভেসে আসা ধূলিকণা ও দূষিত নানা বস্তুকে দায়ী করেছেন। মূলত ভারতীয় পাঞ্জাবের ধান চাষীদের খড় ও বিচুলি পোড়ানোর কারণে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র বস্তুকণা বাতাসে মিশে তা দূষিত করে ফেলে এবং সেই বাতাস একদিকে দিল্লি ও অন্যদিকে লাহোরকেও সমস্যার মধ্যে ফেলছে।সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি

news