১৭শ কর্মীকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠাচ্ছে সৌদি কোম্পানি

সৌদি আরবের পবিত্র নগরী মদিনায় পরিচ্ছন্তার কাজে নিয়োজিত বিয়াহ্ ক্লিনিং কোম্পানিতে ২ হাজার ২২৫ জন বাংলাদেশি শ্রমিক কাজ করে। এদের মধ্যে থেকে যারা বিভিন্ন সময়ে কর্মবিরতি ও বিভিন্ন ধরনের আন্দোলন করে আসছে তাদের ভেতর থেকে ১ হাজার ৭ শত জন শ্রমিককে দেশের পাঠানোর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বাকি ৫২৫ জন শ্রমিক ওই কোম্পানিতে কাজ করতে পারবেন। 

বিয়াহ্ ক্লিনিং কোম্পানির ক্যাম্পে অবস্থানরত একজন জানান, বেতন বাড়ানোর জন্য দীর্ঘ কয়েক দিন কোম্পানিটির বাংলাদেশি শ্রমিকেরা কর্মবিরতিসহ বিভিন্ন আন্দোলন করে যাচ্ছে এবং শ্রমিকদের চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ায় কোম্পানির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। 

কোম্পানিতে কর্মরত কয়েকজন শ্রমিক বলেন, এ কোম্পানির বিভিন্ন সেকশনের বাংলাদেশি সুপারভাইজারদের সিন্ডিকেটের শিকার সাধারণ শ্রমিকরা। তাদের বিরুদ্ধে সামান্য বেতনের বিনিময়ে সাধারণ শ্রমিকদের কাজের ধরন পাল্টানোর অভিযোগ উঠেছে। এদিকে বিভিন্ন ধরনের আন্দোলন মারামারি ভাঙচুরের কারণেই কোম্পানির এ সিদ্ধান্ত বলে মনে করেন শ্রমিকদের আরেক অংশ।
এ বিষয়ে জেদ্দা কনস্যুলেট লেবার কাউন্সিলর কাজী এমদাদুল ইসলাম বলেন, গত দুদিন থেকেই আমরা এ বিষয়ে মদিনা লেবার মিনিস্ট্রিসহ ওই কোম্পানির উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে দফায় দফায় আলাপ-আলোচনা করছি। তবে বাংলাদেশিরা বিক্ষোভ করে সৌদি আইন লঙ্ঘন, তাই তাদের ফেরত পাঠানোর বিষয়ে অনড় সৌদি কতৃপক্ষ। 

তিনি আরো জানান, প্রতিষ্ঠানটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মোট এসব শ্রমিকের সব পাওনা পরিশোধ করে তাদের পর্যায়ক্রমে নিজ দেশে পাঠানো হবে। শ্রমিকরা যেন তাদের পাওনা বুঝে পায় সেজন্য জেদ্দা কনস্যুলেটের লেভার কাউন্সিলরের একটি প্রতিনিধি দল সেখানে অবস্থান করছেন। news