পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার লতিফকে ১২ বছরের কারাদণ্ড দিলো নেদারল্যান্ড্স

পাকিস্তানের অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক খালিদ লতিফের ১২ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। গত সোমবার নেদারল্যান্ডসের একটি আদালত এই সাজা ঘোষণা করেন। তিনি নেদারল্যান্ডসের চরমপন্থি নেতা গির্ট ওয়াইল্ডার্সকে খুনের হুমকি দিয়েছিলেন বলে জানা যায়। ২০১০ সালের এশিয়ান গেমসে পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি।

লতিফের নেতৃত্বে ২০০৪ সালে বাংলাদেশে আয়োজিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল পাকিস্তান। ২০১০ সালে আয়োজিত এশিয়ান গেমসেও পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন লতিফ।

২০১৮ সালে সামাজিক যোগযাযোগমাধ্যমে পোস্ট করা এক ভিডিওর কারণেই এমন সাজার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। ওয়াইল্ডার্সকে কেউ হত্যা করলে তাকে লতিফ পুরস্কার দেবেন বলে ওই ভিডিওতে জানিয়েছিলেন সাবেক এ ক্রিকেটার।

ওয়াইল্ডার্সের বিরুদ্ধে লতিফের এমন ক্ষুব্ধ হওয়ার কারণ ছিল ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত পাওয়া। কেননা, ওয়াইল্ডার্স হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর ব্যঙ্গচিত্রের একটি প্রতিযোগিতা করতে চেয়েছিলেন। পরে অবশ্য সে পরিকল্পনা থেকে সরে এসেছিলেন তিনি। সেই সময় লতিফ একটি অনলাইন ভিডিওতে ওয়াইল্ডার্সের মারার জন্য ২১ হাজার ইউরো পুরস্কারের ঘোষণা করেন। 

তখন নেদারল্যান্ডসে রাজনীতিবিদ, স্থানীয় মিডিয়া এবং সাধারণ নাগরিকরা এ বিষয়টিকে মুসলমানদের বিরুদ্ধাচারণ বলে নিন্দা জানিয়েছিলেন।

এদিকে ডাচ কর্তৃপক্ষ লতিফকে এ মামলার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য চেষ্টা করলেও পাকিস্তান থেকে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

ডাচ বিচারক ভারবেক বলেছেন, লতিফের ভিডিওটি কেবল ব্যক্তিগতভাবে ওয়াইল্ডার্সের ওপর আক্রমণ নয়, নেদারল্যান্ডসে বাকস্বাধীনতার ধারণার ওপরও। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি

news