ধারাভাষ্য থেকে ওয়াকারের নাম প্রত্যাহার প্রশ্নে হাইকোর্টে রুল

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসানকে নিয়ে ‘কটূক্তি’ করায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ধারা ভাষ্যকারের তালিকা থেকে পাকিস্তানের ওয়াকার ইউনিসের নাম প্রত্যাহারে আইসিসিতে অভিযোগ দায়েরের নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েছে হাইকোর্ট।

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি করে বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর বেঞ্চ বুধবার এ রুল দেয়। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও বিসিবি প্রেসিডেন্টকে ১০ দিনের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ওয়ালিউর রহমান খান এ রিট আবেদন করেন। রিটের পক্ষে তিনি নিজেই শুনানি করেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায় ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সেলিম আজাদ।

চলমান বিশ্বকাপ ক্রিকেটের গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ হয়। দিল্লির অরুন জেটলি স্টেডিয়ামে ওই ম্যাচে দেরি করে ক্রিজে আসায় কোনো বল না খেলেই মাঠ থেকে বিদায় নিতে হয় শ্রীলঙ্কার ব্যাটার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসকে।

কোনো খেলোয়াড় আউট হলে পরবর্তী ব্যাটসম্যানকে হেলমেট পরে ব্যাটহাতে প্যাভিলিয়ন থেকে দুই মিনিটের মধ্যে ক্রিজে আসার নিয়ম রয়েছে।  খানিকটা ধীরগতিতে ক্রিজে এসে খেলার প্রস্তুতি নেন। বল হাতে প্রস্তুত ছিলেন সাকিব। ওই সময় হেলমেটের স্ট্রাইপ ছিঁড়ে যাওয়ায় ম্যাথিউস ড্রেসিং রুম থেকে আরেকটি হেলমেট আনার ইঙ্গিত দেন। এতে দুই মিনিটের বেশি সময় চলে যায়।

ওই অবস্থায় সাকিব আম্পায়ারের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে আম্পায়ার আউট দেন। এর ফলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রায় দেড়শ বছরের ইতিহাসে প্রথম কোনো ক্রিকেটারকে কোনো বল না খেলেই আউট হতে হয়। বিরল এই ঘটনার পর পক্ষে-বিপক্ষে নানা আলোচনা চলছে।

ম্যাথিউস আউট হয়ে ড্রেসিং রুমে ফেরার পর কমেন্ট্রি বক্সে সমালোচনা করেন পাকিস্তানের কিংবদন্তি ওয়াকার ইউনিস ও শ্রীলংকার সাবেক তারকা ক্রিকেটার রাসেল আরনল্ড। অ্যাডভোকেট ওয়ালিউর রহমান খান ঙই গণমাধ্যমকে বলেন, এক পর্যায়ে সাকিব আল হাসান সম্পর্কে ধারা ভাষ্যকার ওয়াকার ইউনিস বলেন, ছি ছি সাকিব এটা কী করল? তবে সাকিব, একমাত্র সাকিবের পক্ষেই এমন কিছু সম্ভব। বাংলাদেশ যা করেছে তা ক্রিকেটের চেতনাবিরোধী।

এ আইনজীবী বলেন, ধারা ভাষ্যকারের তালিকা থেকে ওয়াকার ইউনিসের নাম বাদ দিতে আইসিসি বরাবর আবেদন করতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে কেন আদেশ দেওয়া হবে না তা ব্যাখ্যা করতে বলেছে আদালত। শুনানি শেষে আদালত আগামী ১৯ নভেম্বর পরবর্তী দিন রেখেছে রুল শুনানির জন্য। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া বাংলা

এনবিএস/ওডে/সি

news