বন্যা নিয়ে ভ্রূক্ষেপ নেই, শিব সেনা বিধায়কদের আপ্যায়ণে ব্যস্ত অসম সরকার! পথে নেমে বিক্ষোভ তৃণমূলের

 একদিকে রাজ্যে নিদারুণ প্রাকৃতিক বিপর্যয়। প্রকৃতির কোপে অসহায় জল-যন্ত্রণা ভোগ করছে প্রায় ২০ লক্ষ মানুষ। অথচ অন্যদিকে রাজ্যবাসীর দুর্ভোগ-কষ্ট উপেক্ষা করে শাসকদলের নেতা-মন্ত্রীরা ব্যস্ত রাজনীতির পাশাখেলায়। বন্যা দুর্গতদের পাশে না দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা (Himanta Biswasarma) ঘুরে বেড়াচ্ছেন উপনির্বাচনের প্রচারে। আবার এই বিপর্যয়ের মধ্যেই মহারাষ্ট্রের বিদ্রোহী শিব সেনা বিধায়কদের অপ্যায়ণে ব্যস্ত বিজেপি নেতারা। বন্য নিয়ে প্রশাসনের এই উদাসীনতার বিরুদ্ধে এবার পথে নামল তৃণমূল।

মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী তথা শিব সেনার বিক্ষুব্ধ নেতা একনাথ শিন্ডের নেতৃত্বে জনা ৪০ সেনা বিধায়ক গুয়াহাটির রিসর্টে বন্দি। সেখানে চলছে অতিনাটকীয় ‘হাইজ্যাক রাজনীতি’। যে হোটেলে শিব সেনা বিধায়কদের রাখা হয়েছে, তার বাইরেই এদিন সকালে বিক্ষোভ দেখান অসমের তৃণমূল (TMC) কর্মীরা। খোদ দলের রাজ্য সভাপতি রিপুণ বোরা ওই বিক্ষোভ কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন। তৃণমূল কর্মীদের সেই বিক্ষোভ দমন করতে পুলিশ দিয়ে কর্মীদের গ্রেপ্তার করিয়েছে অসম সরকার।

বস্তুত, অনির্বচনীয় জলকষ্টের শিকার দেশের উত্তর-পূর্বের এই রাজ্যের অধিবাসীরা। কমপক্ষে ৫৫ লক্ষ মানুষ এখনও দুর্গত এলাকায় আটকে। জলের তোড়ে ডুবে গিয়েছে ঘরবাড়ি, হারিয়ে গিয়েছে শেষ সম্বলটুকুও। না আছে আশ্রয়, না আছে অন্ন। প্রতি মুহূর্তে অবনতি হচ্ছে অবস্থার। অথচ সাধারণের এই দুর্ভোগ-দুর্দশার দিকে কোনও ভ্রুক্ষেপই নেই রাজ্যের বিজেপি (BJP) সরকারের। না নেওয়া হচ্ছে বন্যা নিয়ন্ত্রণে কোনও দরকারি পদক্ষেপ, না দুর্গতদের পাশে সক্রিয়ভাবে দাঁড়াচ্ছেন প্রশাসনের কেউ। দেখা যাচ্ছে না রাজ্যের নেতা-মন্ত্রীদের কাউকে। পরিস্থিতি দেখে শাসকদলের প্রতি রীতিমতো তিতিবিরক্ত রাজ্যবাসী।সংবাদ প্রতিদিন /এনবিএস/২০২২/একে news