সরযূ নদীতে স্নানের মাঝে বউকে চুমু, যুবককে বেধড়ক পেটাল জনতা, ভাইরাল ভিডিও

 পবিত্র নদীতে স্নান করতে নেমে স্ত্রীকে একখানি চুমু খেয়েছিলেন স্বামী, এই ‘অপরাধে’ ক্ষেপে উঠল জনতা। বেধড়ক মারধর করা হল স্বামীকে। মারতে মারতেই জল থেকে তুলে দেওয়া হল স্বামী-স্ত্রীকে। এমনটা ঘটল অযোধ্যায় (Ayodhya)। ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media)। নিন্দার ঝড় ওঠে। জানা গিয়েছে, ভিডিও হাতে পেয়েই ঘটনার তদন্তে নেমেছে অযোধ্যা পুলিশ।

অযোধ্যার সরযূ (Sarayu) নদীতে স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে স্থান করতে নেমেছিলেন এক যুবক। জলে ডুব দিয়ে শরীরের ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছিলেন স্ত্রী। ফলে বারবার স্বামীকে আঁকড়ে ধরেছিলেন তিনি। ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে, সরযূ নদীতে স্নান করছেন ওই স্বামী-স্ত্রী। একটি ডুব দিয়ে জলের ধাক্কায় প্রায় পড়ে যাচ্ছিলেন স্ত্রী, তখন স্বামীকে আঁকড়ে ধরেন। ওই সময়ই স্ত্রীর গালে একটি চুমু খান যুবক। তাতেই মুহূর্তে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে আশাপাশে স্নানরত জনতা। শুরুতে এক ব্যক্তি এগিয়ে এসে হুঁশিয়ারি দেয়, ‘‘এটা অযোধ্যা! এখানে এ সব অসভ্যতামি চলবে না।”

একথা বলতে না বলতে যুবককে মারতে শুরু করেন ওই ব্যক্তি। স্ত্রী বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু আরও কয়েকজন এগিয়ে এসে মারতে শুরু করেন। চলতে থাকে একের পর এক লাথি-চড়-ঘুষি। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে স্ত্রী প্রাণপনে ক্ষিপ্ত জনতার হাত থেকে স্বামীকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। কিন্তু পারছেন না। কারণ ততক্ষণে অনেকে ঘিরে ধরেছে যুবককে। শেষ পর্যন্ত ওইভাবে মারতে মারতেই তাঁকে জল থেকে টেনে ঘাটে তুলে দেওয়া হয়।

এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই নেটিজেন প্রশ্ন তোলে, অযোধ্যা হোক বা অন্য কোথাও, স্ত্রীকে একটি চুমু খেয়েছেন বলে স্বামীকে মারধর করা হবে? কীভাবে এই কাজকে অপরাধ বলা হচ্ছে? এদিকে ঘটনার ভিডিও পৌঁছায় পুলিশের কাছে। অপরাধীদের শনাক্ত করতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। টুইট করে অযোধ্যা পুলিশ জানিয়েছে, “অযোধ্যা কোতোয়ালি থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। উপযুক্ত পদক্ষেপ করা হবে।সংবাদ প্রতিদিন /এনবিএস/২০২২/একে news