হাওড়া স্টেশনে উদ্ধার লক্ষ লক্ষ টাকা, আটক যাত্রী

 রাজ্যের নানা জায়গায় থেকে উদ্ধার হচ্ছে নগদ টাকা। এবার চম্বল এক্সপ্রেসের যাত্রীর ব্যাগ থেকে পাওয়া গেল নগদ ৩৫ লক্ষ টাকা। বুধবার ভোরে হাওড়া স্টেশনে ট্রেনটি আসার পর আরপিএফ তল্লাশি চালানোর সময় সন্ধান মেলে এই টাকার। আটক করা হয়েছে এক ব্যক্তিকে।

জানা গিয়েছে, মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরের রবীন্দ্রনাথ টেগোর ওয়ার্ডের বাসিন্দা রাজকুমার সোনির কাছে পাওয়া যায় এই বিপুল পরিমাণ অর্থ। এত টাকা কাছে থাকলেও কোনওরকম তথ্য প্রমাণ দেখাতে পারেননি সোনি। ফলে তাঁকে টাকা-সহ আটক করে আয়কর দপ্তরের হাতে তুলে দেয় আরপিএফ। জেরায় রাজকুমার সোনি বলেছেন, কলকাতা সোনাপট্টিতে সোনা কিনতে আসছিলেন তিনি। মূলত জিএসটি ফাঁকি দিতে এই নগদ টাকার লেনদেন হয়ে থাকে বলে আয়কর বিভাগ সূত্রে মত।

উল্লেখ্য, এর আগে হাওড়া স্টেশনে একাধিকবার নগদ টাকা ও সোনা-রুপোর বাট উদ্ধার হয়েছে। জিআরপি সূত্রে খবর, জিএসটি ফাঁকি দিতে এক শ্রেণির ব্যবসায়ী এই পন্থা নেন। কাগজপত্রহীন ভাবে সোনা-রুপোর বাট নিয়ে এসে অলঙ্কার তৈরি করে তা আবার একইভাবে ট্রেনে নির্ধারিত জায়গায় পৌঁছে দেন।

গতবছর হাওড়া নিউ কমপ্লেক্সে ১৫ কিলো রুপো-সহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছিল আরপিএফ। আনলক পর্যায়ে ট্রেনে করে এই সোনা-রুপো পাচারে উদ্বিগ্ন পুলিশ ও আরপিএফ। কর ফাঁকি দিতে এই প্রবণতা বাড়ছে বলে তাদের অনুমান। তবে, পাচারকারীদের রমরমা রুখতে ট্রেনে ও স্টেশনে কড়া নজরদারি চালানো হচ্ছে।সংবাদ প্রতিদিন/এনবিএস/২০২২/একে news