দেশের দৈনিক করোনা গ্রাফে আরও খানিকটা স্বস্তি, তবে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মাঙ্কিপক্স

একদিকে করোনা অন্যদিকে মাঙ্কিপক্স। একটি খানিকটা স্বস্তি দেওয়ার ইঙ্গিত দিতেই আরেকটি আবার উদ্বেগ বাড়িয়ে দিল। রবিবার আরও খানিকটা কমল দেশের দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু একই দিনে দিল্লিতে সন্ধান মিলল আরও এক মাঙ্কিপক্স আক্রান্তের। এই নিয়ে শুধু রাজধানী দিল্লিতে মাঙ্কিপক্সের (Monkeypox) কবলে পড়লেন ২ জন। গোটা দেশে আক্রান্ত ১০। এদিকে খানিক স্বস্তি মিললেও দৈনিক করোনা আক্রান্ত নেহাত কম নয়।


রবিবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ৯২ জন। যা আগের দিনের থেকে সামান্য কম। সংক্রমণ বাড়লেও অবশ্য গত ২৪ ঘণ্টায় খানিকটা কমেছে অ্যাকটিভ কেস। দেশের সক্রিয় রোগী বর্তমানে ১ লক্ষ ১৬ হাজার ৮৬১ জন। গোটা দেশে অ্যাকটিভ কেসের হার ০.২৬ শতাংশ।

[আরও পড়ুন: একই বোতল থেকে জল খাওয়ার অপরাধ! রাজস্থানে দলিত ছাত্রকে পিটিয়ে মারল শিক্ষক]
স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিন অনুযায়ী, ভারতে একদিনে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৪১ জন। যা আগের দিনের থেকে অনেকটাই কম। দেশে এখনও পর্যন্ত কোভিডে মোট মৃতের সংখ্যা ৫ লক্ষ ২৭ হাজার ৩৭। বেশ কয়েকটি রাজ্যের করোনা গ্রাফ এখনও উদ্বেগজনক। এখনও চিন্তায় রাখছে কেরল, তামিলনাড়ু, কর্ণাটকের মতো রাজ্যগুলির করোনা পরিসংখ্যান। তবে সবচেয়ে উদ্বেগের জায়গা দিল্লি। সেখানে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ৩১ জন আক্রান্ত। মৃত ৯।
তবে এসবের মাঝে মারণ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াইয়ে শক্তি জোগাচ্ছেন করোনাজয়ীরা। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত দেশে ৪ কোটি ৩৬ লক্ষ ৯ হাজার ৫৬৬ জন করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন। সুস্থতার হার ৯৮.৫৪ শতাংশ। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য জানাচ্ছে, দেশে করোনার টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে প্রায় ২০৭ কোটি ৯৯ লক্ষ। গত ২৪ ঘণ্টাতেই টিকা পেয়েছেন প্রায় ১৮ লক্ষ। টিকাকরণের পাশাপাশি করোনা রোগী চিহ্নিত করতে জোর দেওয়া হচ্ছে টেস্টিংয়েও। গতকাল দেশে ৩ লক্ষ ৮১ হাজার জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।সংবাদ প্রতিদিন/এনবিএস/২০২২/একে news