খিদের চোটে কাঁদছিল শিশু! দেওয়ালে মাথা ঠুকে, গলা টিপে মারল পিসেমশাই


 খিদের জ্বালায় কান্নাকাটি করায় চার বছরের এক শিশুকে (baby) দেওয়ালে মাথা ঠুকে ও গলা টিপে শ্বাসরোধ করে খুন করা হল দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরের (Sonarpur) বেনিয়াবৌ এলাকায়। খুনের অভিযোগ উঠেছে সেই শিশুর পিসেমশাইয়ের (relative) বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে সোনারপুর থানা এলাকার বেনিয়া বৌ এলাকায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছে আরও এক শিশু। তাকে এনআরএস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযুক্ত যুবকের নাম প্রসেনজিৎ মণ্ডল।
পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে খবর, এই দুই শিশুকে পিসেমশাইয়ের কাছে রেখে কাজে গিয়েছিল তাদের মা। এদিকে, রাতেরবেলায় খাবার না খেতে পেয়ে দু’জনেই কান্নাকাটি শুরু করে। এতেই রেগে যায় প্রসেনজিৎ। সে তখন নেশাগ্রস্ত অবস্থায় ছিল। দুই বাচ্চা নাগাড়ে কান্নাকাটি করতেই সে দু’জনের মাথা ধরে দেওয়ালে ঠুকে দেয়। এতে তারা আরও জোরে কাঁদতে শুরু করায় করলে গলা টিপে ধরে অভিযুক্ত।

শিশুদের কান্নার আওয়াজ শুনে ছুটে আসে সেই বাড়ির মালিক হান্নান মণ্ডল ও অন্যান্য প্রতিবেশী। তাঁরা এসেই দরজায় ধাক্কা দিতে শুরু করে। এরপর প্রসেনজিতকে দরজা খোলার কথা বললেও সে রাজি হয়নি। তারপর জোর করে দরজা খুলিয়ে ভিতরে ঢোকেন সবাই। ঘরে গিয়ে সকলে দেখেন কাঁথা মুড়ি দিয়ে দুই শিশুকে শোওয়ানো আছে। এই ভয়াবহ দৃশ্য দেখে তড়িঘড়ি খবর দেওয়া হয় সোনারপুর থানায়।

পুলিশ গিয়ে দুই শিশুকে উদ্ধার করে সোনারপুর গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই একজনকে মৃত বলে ঘোষণা করে চিকিৎসক। অপরজনকে তড়িঘড়ি কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে রেফার করা হয়। বর্তমানে সেখানেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় ভর্তি রয়েছে শিশুটি। এদিকে, ঘটনার পরই গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত পিসেমশাই প্রসেনজিৎ মণ্ডলকে।


খবর দ্য ওয়ালের /এনবিএস/২০২২/একে news