দুর্নীতির তদন্তে সিবিআই দফতরে হাজিরার নির্দেশ বিধায়ক মানিক ভট্টাচার্যকে

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোলকাতা হাইকোর্ট বিধায়ক ও প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অপসারিত সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যকে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা ‘সিবিআই’ দফতরে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে।

আজ মঙ্গলবার রাত ৮টার মধ্যে সিবিআই দফতরে হাজির হতে নির্দেশ দিয়েছেন কোলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি বলেন, প্রয়োজনে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অপসারিত সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যকেকে গ্রেফতারও করতে পারবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।  

এ প্রসঙ্গে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, ‘উনি লক্ষ লক্ষ ছেলে মেয়ের চোখের জল বার করেছেন, জীবন অতিষ্ঠ করেছেন, বছরগুলো নষ্ট করেছেন। কিন্তু তারপরেও উনি বিধায়ক ও নেতা! উনাকে যেখানে পাবে ছেলেমেয়েরা ওকে গলায় গামছা দিয়ে টেনে আনবে। অপদার্থতার শেষ হওয়া উচিত। আমি এই রায়কে স্বাগত জানাচ্ছি।’ 

এদিকে, বিধায়ক মানিক ভট্টাচার্যকে বুধবার পর্যন্ত গ্রেফতার করা যাবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত টেট দুর্নীতিতে অভিযুক্ত মানিক ভট্টাচার্যকে সিবিআই দফতরের হাজিরা দেওয়ার যে নির্দেশ কলকাতা হাই কোর্ট দিয়েছিল, তা বহাল রেখেছে সুপ্রিম কোর্ট। 

এদিকে, আজ (মঙ্গলবার) প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা টেটের উত্তরপত্র (ওএমআর শিট) নষ্ট করার অভিযোগে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষায় প্রায় ২৩ লাখ পরীক্ষার্থী ছিলেন। উত্তরপত্রগুলো নষ্ট করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠে। মোট ১২ লাখের বেশি ‘ওএমআর শিট’ নষ্ট করা হয়েছে বলে অভিযোগ। মানিক ভট্টাচার্যকে জেরার পাশাপাশি উত্তরপত্র কেন নষ্ট করা হল, সে বিষয়ে তদন্ত করে সিবিআইকে এক মাসের মধ্যে রিপোর্ট জমা দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। ওই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামী ১ নভেম্বর।
খবর পার্সটুডে/২০২২/এনবিএস/একে news