মহানবীর (সা.) অবমাননায় ক্ষুব্ধ ইরান: ভারতীয় রাষ্ট্রদূত তলব

ভারতের একটি টিভি টকশোতে বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.)-এর প্রতি অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদ জানানোর জন্য তেহরানে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। ভারতে রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর অবমাননার খবরে গোটা মুসলিম বিশ্বে যখন প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে তখন তেহরান এ ব্যবস্থা নিল।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক মহাপরিচালক গতকাল (রোববার) ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠান। এ সময় ভারতে রাসূলের অবমাননার বিরুদ্ধে ইরানের সরকার ও জনগণের তীব্র প্রতিবাদের কথা জানিয়ে দেয়া হয়।

ভারতীয় রাষ্ট্রদূত এ ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ইসলামের নবীর প্রতি অবমাননাকর কোনো মন্তব্য একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়।তিনি দাবি করেন, ভারতের ক্ষমতাসীন দলের দু’জন নেতা ইসলাম অবমাননাকর যে বক্তব্য দিয়েছেন তাতে ভারত সরকারের নীতি-অবস্থান ফুটে ওঠেনি; এটি তাদের ব্যক্তিগত অভিমত।ভারত সরকার সব ধর্মের প্রতি সম্মান জানায় বলেও দাবি করেন রাষ্ট্রদূত।

সম্প্রতি এক টিভি নিউজ টকশোতে ভারতের ক্ষমতাসীন উগ্র হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা রাসূলুল্লাহ (সা.)-এর প্রতি অবমাননাকর মন্তব্য করেন।এর বিরুদ্ধে ভারতের মুসলমানরা তীব্র ক্ষোভে ফেটে পড়েন এবং উত্তর প্রদেশের কানপুরে প্রতিবাদকারী জনতার সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়।

বিজেপি রোববার নূপুরকে দল থেকে বহিষ্কারের পাশাপাশি তার মন্তব্যের সঙ্গে দলের কোনো সম্পর্ক নেই বলে ঘোষণা করে। এছাড়া, বিজেপি তাদের দিল্লি মিডিয়া সেন্টারের প্রধান নবীন কুমার জিন্দালকেও দল থেকে বহিষ্কার করে। জিন্দালও তার টুইটার পেজে ইসলাম অবমাননাকর মন্তব্য করেছিলেন যদিও পরে তিনি তা সরিয়ে ফেলেন।বিজেপি দাবি করেছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জিন্দালের মন্তব্য ছিল সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ক্ষতি করার অপচেষ্টা এবং দলের মৌলিক মতাদর্শের লঙ্ঘন।

রোববার এক টুইটার বার্তায় অবশ্য নূপুর শর্মা টকশোতে তার মন্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেছেন, “আমি আমার বক্তব্যের মাধ্যমে যদি কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে থাকি তাহলে আমি তা প্রত্যাহার করে নিচ্ছি।”

নূপুর শর্মার মন্তব্যের বিরুদ্ধে ইরানের পাশাপাশি পাকিস্তান, কাতার ও কুয়েতসহ বিভিন্ন মুসলিম দেশ প্রতিবাদ জানিয়েছে।পাকিস্তান এক বিবৃতিতে শর্মার চরম অবমাননাকর মন্তব্যের ‘কঠোরতম প্রতিবাদ’ জানিয়েছে। কুয়েত সরকার দেশটিতে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করেছে।

কাতার সরকার নূপুর শর্মাকে বিজেপি থেকে বহিষ্কারের ঘটনাকে স্বাগত জানালেও বলেছে, এ ব্যাপারে ভারত সরকারকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা চাইতে হবে। ভারতের ভাইস প্রেসিডেন্ট বেঙ্কাইয়া নাইডুর কাতার সফরের দ্বিতীয় দিনে গতকাল দোহায় নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব বলে কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ইয়েমেনের আনসারুল্লাহ আন্দোলনও বিজেপি মুখপাত্রের ইসলাম অবমাননাকর মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে। একইভাবে ভারতে ইসলাম অবমাননার নিন্দা জানিয়েছে ইসলামি সহযোগিতা সংস্থা ওআইসি।খবর পার্সটুডে/এনবিএস/২০২২/একে 

news