কালা আদমি’র সামনে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদের ‘ভুল স্বীকার’ রাজা চার্লসের

কয়েকদিন আগেই ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী পদে বসেছেন অ-শ্বেতাঙ্গ ঋষি সুনাক। এবার খোদ রাজা তৃতীয় চার্লস সাম্রাজ্যবাদের ‘ভুল স্বীকার’ করলেন। তাও আবার ‘কালা আদমি’ সিরিল রামাফোসার কাছে। এই ঘটনাই প্রমাণ করছে, সাম্রাজ্যবাদী মানসিকতা দূর করে অতীতের ভুল শুধরে নিতে চাইছে দেশটি।

এবছর মসনদে বসার পর মঙ্গলবার প্রথম রাজকীয় ভোজসভার আয়োজন করেন চার্লস। সেখানে ‘গেস্ট অফ অনার’ ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা। বাকিংহাম প্যালেসে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে রাজা ও রানি ক্যামিলার পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন প্রিন্স অফ ওয়েলস উইলিয়ামস ও তাঁর স্ত্রী কেট মিডলটন-সহ অনেকেই। অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট রামাফোসা থাকলেও অসুস্থতার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার ফার্স্ট লেডি তশেপো মতসেপে উপস্থিত থাকতে পারেননি।

এদিনের ভোজসভার আগে অতিথিদের উদ্দেশে নিজের ভাষণে দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্রিটেনের সাম্রাজ্যবাদী আধিপত্যের ‘দারুণ যন্ত্রণা’র জন্য অনুতাপ প্রকাশ করেন রাজা চার্লস। তাঁর কথায় মাথা নাড়তে দেখা যায় প্রেসিডেন্ট রামাফোসাকে। দুই দেশের মধ্যে ‘নতুন যুগে’র সূচনা করে এদিন প্রয়াত রানি এলিজাবেথের উত্তরসূরি বলেন, “অতীতের ভুল স্বীকার করছে ব্রিটেন। ফেলে আসা সময়ের দারুণ যন্ত্রণা উসকে দেয়। কিন্তু সেই বিষয়গুলিকে বোঝা অত্যন্ত জরুরি। চলতি বছরের শুরুর দিকে কমনওয়েলথ নেতৃত্বকে আমি বলেছি, আমাদের যৌথ ভবিষ্যতকে দৃঢ় করতে অতীতের ভুলগুলিকে আগে স্বীকার করতে হবে।” বলে রাখা ভাল, গত বছর বার্বাডোজে ‘দাসপ্রথা’কে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদী অতীতের ‘কালো দাগ’ বলে উল্লেখ করেন চার্লস।

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, রাজা চার্লসের (King Charles) ভাষণ চলাকালীন সম্মতিসূচক ভাবে মাথা নাড়তে দেখা যায় প্রেসিডেন্ট রামাফোসাকে। দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক মজবুত করার বার্তা দিয়ে কমনওয়েলথের মতোই দক্ষিণ আফ্রিকাও তাঁর বুকের মধ্যে রয়েছে বলে উল্লেখ করেন রাজা চার্লস। সবমিলিয়ে, সাম্রাজ্যবাদী আধিপত্যের দাগ মুছে ফেলতে চাইছেন তিনি বলেই মনে করা হচ্ছে।
সংবাদ প্রতিদিন/এনবিএস/২০২২/একে news