ঈদের রেসিপি মাসকলাইয়ের খিচুড়ি

ঈদের দিন থাকে নানা রকমের খাবারের আয়োজন। এসব খাবারের মাঝেও ঈদের সকালে অনেকেই খিচুড়ি খেতে পছন্দ করেন। আর মাসকলাই ডালের খিচুড়ির  তো তুলনা হয়না । তবে এই খিচুড়ি রাঁধতে গিয়ে অনেকেই দিশাহারা হয়ে পড়েন।

কারও কারও খিচুড়ি হয় বেশি নরম আবার কোনোটির স্বাদ ততটা মজার হয় না। কিন্তু রেসিপি অনুশরণ করলে খুব সহজেই সঠিকভাবে রান্না করে ফেলতে পারবেন মাসকলাই ডালের খিচুড়ি।

উপকরণ: পোলাও চাল দেড় কাপ, মাশকলাই ডাল আধা কাপ টেলে নেওয়া, পেঁয়াজ কুঁচি ৩ টেবিল চামচ,  দারুচিনি ২ টুকরা, এলাচ ২টি, তেজপাতা ১টি, আদা বাটা ১ চা চামচ, রসুন বাটা ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, ভাঁজা জিরার গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, গরম পানি ৩ কাপ, সাদা তেল ৪ টেবিল চামচ ফোঁড়নের জন্য, সরিষার তেল ৪ টেবিল চামচ, তেজপাতা ১টি, পেঁয়াজ কুঁচি ১/৪ কাপ, কাঁচা মরিচ ফালি ২/৩টি ও শুকনা মরিচ ২টি।

তৈরির পদ্ধতি : প্রথমে পোলাও চাল ও ডাল ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে। এরপর প্যানে তেল গরম করে গরম মসলা ও পেঁয়াজ ভেজে নিন। তারপর আদা রসুন বাটা দিয়ে ভালো করে নেড়ে সামান্য পানি দিন।

এরপর  স্বাদ মতো লবণ, মরিচ হলুদ গুঁড়া এবং ভাঁজা জিরার গুঁড়া দিয়ে ভালো ভাবে কষিয়ে নিন। মসলার তেল উপরে উঠে এলে চাল ও ডাল দিয়ে ঘন ঘন নাড়তে থাকবেন ,খেয়াল রাখতে হবে যেন পাত্রের তলানিতে লেগে না যায়। একটু ভাঁজা ভাঁজা হয়ে এলে এর মধ্যে ৩ কাপ গরম পানি ঢেলে দিন।

আলাদা একটি পাত্রে ফোঁড়নের জন্য তেল গরম দিন। তেল গরম হলে তেলের মধ্যে একে একে তেজপাতা, শুকনা মরিচ, পেঁয়াজ কুঁচি ও কাঁচা মরিচ ফালি দিয়ে দিন।
পেঁয়াজ মরিচ একটু ভাঁজা ভাঁজা হয়ে এলে তেলসহ সব উপকরণ ঢেলে দিয়ে খিচুড়ি ভালো করে নেড়ে ঢেকে দিন। এসময় চুলার আঁচ একদম কমিয়ে খিচুড়ি দমে রাখুন ২০ মিনিটের জন্য।

এই ২০ মিনিটের মধ্যে পাত্রের ঢাকনা একবারও খুলবেন না। ২০ মিনিট হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে দিন। তারপর পাত্রের ঢাকনা খুলে হালকা হাতে খিচুড়ি একটু নেড়ে আবার ঢেকে রেখে কিছুকষণ পর পরিবেশন করুন। news